• বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ০৮:৫৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম
খাগড়াছড়িতে পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের বিক্ষোভ মিছিল বেলকুচি উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত শিক্ষার্থীদের শিক্ষা অর্জনের মাধ্যমে নিজকে গড়ে তুলে স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনে ভুমিকা রাথতে হবে -বাবুল দাস কাপ্তাই জাতীয় উদ্যানে লজ্জাবতী বানর অবমুক্ত কাপ্তাই বিএসপিআই শিক্ষার্থীদের ওপর ফের হামলা, ৪ জন আহত এম কে বাঘাবাড়ী ঘি কোম্পানির উৎপাদনকারী মো: কামাল উদ্দিনের ১ বছরের কারাদণ্ড কোটা সংস্কারের দাবিতে  কাপ্তাই বিএসপিআই এ শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল দিনেদুপুরে কৃষকের বাড়িতে হামলা লুটপাট রাঙামাটি সদর জোনের বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ঔষধ প্রদান আলীকদম সেনা জোন কর্তৃক মানবিক সহায়তা প্রদান পানছড়ি মাদ্রাসায় অব্যবস্থাপনা ও অবৈধ নিয়োগ বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন খাগড়াছড়িতে মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচারবিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস উপলক্ষ্যে র‍্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

রাঙামাটি রিজিয়ন কর্তৃক ঈদুল-ফিতর উপলক্ষে সুবিধা বঞ্চিতদের মানবিক সহায়তা

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাঙ্গামাটি: / ২৭৫ জন পড়েছেন
প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ২৮ এপ্রিল, ২০২২

পার্বত্য জেলা রাঙামাটিতে স্থিতিশীলতা ও শান্তি বজায় রাখার লক্ষ্যে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী রাঙামাটি রিজিয়ন নিয়মিতভাবে বিভিন্ন ধরনের জনকল্যানমূলক কর্মসূচি পরিচালনা করে আসছে। দায়িত্বপূর্ন এলাকার আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার পাশাপাশি সুবিধা বঞ্চিত সকল জনগোষ্ঠীর মানুষদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন সহায়তা প্রদান, গরীব ছাত্রছাত্রীদের আর্থিক সহায়তা প্রদান ও বিভিন্ন আর্থ সামাজিক উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিচালনার মাধ্যমে রাঙামাটি রিজিয়ন দেশ গঠনে গুরুত্বপূর্ন অবদান রেখে চলছে। এরই ধারাবাহিকতায় মুসলমানদের সবচেয়ে বড় উৎসব ঈদ-উল-ফিতর এর আনন্দ ধর্ম বর্ণ এবং জাতিগত বৈষম্য ভূলে সকলের সাথে ভাগাভাগী করে পালন করার অভিপ্রায়ে রাঙামাটি রিজিয়নের আওতাধীন ২০০জন পাহাড়ী-বাঙালীদের মাঝে আজ বৃহস্পতিবার ২৮শে এপ্রিল ২০২২ তারিখে সেনাবাহিনীর মাঠে সকাল ১০.০০ টায় রিজিয়ন কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইমতাজ উদ্দিন, এনডিসি, পিএসসি, কর্তৃক ঈদ উপহার হিসেবে (চাল, সেমাই, চিনি, গুড়াদুধ, তৈল এবং মশলা) সেলাই মেশিন এবং ১ লক্ষ ৫৬ হাজার টাকা এবং ২৫ জন অসহায় দুস্থ ব্যক্তিবর্গকে আর্থিক অনুদান প্রদান করা হয়।

এসময় রিজিয়ন কমান্ডার বলেন, আমরা গর্বের সাথে বলতে পারি যে, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী একটি বৈষম্যহীন প্রতিষ্ঠান এবং আমরা আশাকরি সেনাবাহিনীকে অনুকরণীয় হিসেবে গ্রহণ করে ধর্ম,বর্ণ,জাতি, উপজাতি এবং লিঙ্গ ভেদাভেদ ভূলে গিয়ে সকলে দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করবে। তিনি আরো বলেন, একই সাথে পাহাড়ে স্থিতিশীলতা ও শান্তি বজায় রাখার লক্ষ্যেও আমরা রাঙামাটি রিজিয়ন নিয়মিতভাবে বিভিন্ন ধরনের জনকল্যাণমূলক কর্মসূচি পরিচালনা করে আসছি। এ ধারা অব্যাহত থাকবে।

এ সময় রাঙামাটি রিজিয়নের অন্যান্য সামরিক পদস্থ কর্মকর্তাগন উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ