• শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ০৮:৫৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
খাগড়াছড়িতে পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের বিক্ষোভ মিছিল বেলকুচি উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত শিক্ষার্থীদের শিক্ষা অর্জনের মাধ্যমে নিজকে গড়ে তুলে স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনে ভুমিকা রাথতে হবে -বাবুল দাস কাপ্তাই জাতীয় উদ্যানে লজ্জাবতী বানর অবমুক্ত কাপ্তাই বিএসপিআই শিক্ষার্থীদের ওপর ফের হামলা, ৪ জন আহত এম কে বাঘাবাড়ী ঘি কোম্পানির উৎপাদনকারী মো: কামাল উদ্দিনের ১ বছরের কারাদণ্ড কোটা সংস্কারের দাবিতে  কাপ্তাই বিএসপিআই এ শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল দিনেদুপুরে কৃষকের বাড়িতে হামলা লুটপাট রাঙামাটি সদর জোনের বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ঔষধ প্রদান আলীকদম সেনা জোন কর্তৃক মানবিক সহায়তা প্রদান পানছড়ি মাদ্রাসায় অব্যবস্থাপনা ও অবৈধ নিয়োগ বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন খাগড়াছড়িতে মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচারবিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস উপলক্ষ্যে র‍্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

চাঁদাবাজি মামলায় ফরিদপুর চেম্বারের সভাপতি গ্রেফতার

কামরুল হাসান জুয়েল, ফরিদপুর থেকে: / ৪৭৯ জন পড়েছেন
প্রকাশিত : শুক্রবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০২১

ফরিদপুর চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি’র (এফসিসিআই) সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান সিদ্দিককে (৪০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার দিবাগত রাত সোয়া একটার দিকে ঢাকায় ধানমন্ডির ১১ নং রোডের ৮৫/এ বাসা হতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাকে ফরিদপুরে নিয়ে আসা হয়েছে।
শুক্রবার দুপুরে জেলা পুলিশের কনফারেন্স রুমে অনুষ্ঠিত এক ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও তদন্ত) জামাল পাশা। তিনি বলেন, চরমাধবদিয়ার লুৎফর রহমান নান্নু খাঁ (৭০) নামে এক ব্যক্তির দায়েরকৃত মামলায় সিদ্দিককে কোর্টে চালান করা হবে।

ওই মামলায় নান্নু খাঁ অভিযোগ করেন, সিদ্দিক জোর করে তার সম্পত্তি দখল করে নেয়। তার নিকট ১০ লাখ টাকা দাবি করে। ওই টাকা না দেয়ায় গত বছরের ১৪ অক্টোবর সন্ত্রাসীদের সহায়তায় সিদ্দিক তার মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে ১ লাখ টাকা নিয়ে যায়। বৃহস্পতিবার সিদ্দিক গ্রেফতার হয়েছে জানতে পেরে নান্নু খাঁ পুলিশে এ অভিযোগ করেন। শুক্রবার ওই মামলা রেকর্ড হয়।
জামাল পাশা বলেন, বিভিন্ন অস্ত্রধারীদের নিয়ে সন্ত্রাসী বাহিনী করে সিদ্দিক টেন্ডারবাজি ও চাঁদাবাজি বলে অভিযোগ রয়েছে। ফরিদপুর পাসপোর্ট অফিস ও বিআরটিএ অফিসসহ বিভিন্ন সরকারি অফিসে এসব বাহিনী ত্রাস চালাতো ও টেন্ডার ছিনতাই করতো। বিভিন্ন হাটবাজার ইজারা, বালু মহাল নিয়ন্ত্রণ ও ভুমি দখল করেছে। এভাবে সে অঢেল টাকার অবৈধ সম্পদের মালিক হয়েছে।

তিনি জানান, সিদ্দিকের বিরুদ্ধে আরো চার-পাঁচটি মামলা রয়েছে কোতোয়ালি থানায়। এরমধ্যে তিনটি চাঁদাবাজি মামলায় তার বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছে। ২০০৫ সালে সিদ্দিকের বিরুদ্ধে দ্রুত বিচার আইনে একটি মামলা হয়। অন্য মামলাগুলো গত বছরের জুন ও জুলাইতে দায়েরকৃত। চাঁদা না দেয়ায় বল প্রয়োগের অভিযোগ করা হয় তার বিরুদ্ধে।
জামাল পাশা বলেন, সিদ্দিককে গ্রেফতারের পরেও অনেকে ফোন করে বিভিন্ন অভিযোগ জানাচ্ছে তার বিরুদ্ধে। এসবের সত্যতা থাকলে আরো মামলা হবে।

প্রেস ব্রিফিংয়ে সহকারী পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সুমন সরকার বলেন, সিদ্দিক ফরিদপুরের ছোটন হত্যা মামলায়ও সম্পৃক্ত ছিলো বলে ওই মামলায় ইতোপূর্বে গ্রেফতারকৃতরা জানিয়েছে। এবিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তদন্তে সত্যতা পাওয়া গেলে তাকে মামলাতেও গ্রেফতার দেখানো হবে। সংবাদ সম্মেলনে কোতোয়ালি থানার ওসি আব্দুল জলিল, ওসি (তদন্ত) আব্দুল গফফার উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ