• বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ০৯:২৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
সাজেকে বিদেশি মদসহ আটক ৫ গুইমারায় সড়ক দুর্ঘটনায় নারী ও শিশুসহ আহত ২০ আশংকা জনক-২ খাগড়াছড়িতে মোটর সাইকেল এ প্রাণ গেলো যুবকের ঈদের ছুটিতে আলুটিলা সহ বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্র গুলোতে বেড়েছে পর্যটক সমাগম বাঘাইছড়িতে আঞ্চলিক দলের গোলাগুলিতে শান্তি পরিবহনের সুপারভাইজার নিহত ঈদের দ্বিতীয় দিনেও চলছে পশু কোরবানি ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে রাঙামাটিতে গোস্ত বিতরণ পিসিসিপি’র উত্তরণ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে রাজবাড়ীতে পূর্বপাড়ার অসহায় ও সুবিধা বঞ্চিত দুই হাজার নারী পেলো কোরবানির মাংস যৌতুকের দ্বায়ে গ্রেফতার রাঙ্গামাটি ব্লাড ব্যাংক এর প্রতিষ্ঠাতা রাশেদ মানিকছড়ি ডিসি পার্কে পানিতে ডুবে পর্যটকের মৃত্যু! ঈদুল আজহা উপলক্ষে ত্রানসামগ্রী বিতরণ করেছে দীঘিনালা জোন গুইমারায় ১৯৮লিটার চোলাই মদসহ আটক-১

পাঁচ বছরেও শেষ হয়নি একাডেমিক ভবনের কাজ; ব্যহত পাঠদান

এম মহাসিন মিয়া, স্টাফ রিপোর্টার (খাগড়াছড়ি)  / ৫৪৪ জন পড়েছেন
প্রকাশিত : বুধবার, ২০ মার্চ, ২০২৪

এম মহাসিন মিয়া, স্টাফ রিপোর্টার (খাগড়াছড়ি)

দীর্ঘ পাঁচ বছরেও শেষ হয়নি শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের অর্থায়নে নির্মাণাধীন খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলার পাবলাখালী শান্তিপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের চারতলা বিশিষ্ট একাডেমিক ভবনের নির্মাণ কাজ। আর কত বছর সময় লাগবে ভবনের নির্মান কাজ শেষ করতে তা জানা নেই কারো।

ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান “ইউটি মং কন্সটাকশন” দীর্ঘদিন ধরে ভবনের কাজ শেষ না করায় চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। ব্যহত হচ্ছে শিক্ষার্থীদের পাঠদান।

এ ব্যাপারে ওই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও পরিচালনা কমিটি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে একাধিকবার নানাভাবে যোগাযোগ ও অবগত করলেও কোনো সুফল মেলেনি। ফলে নতুন বছর শুরুর সঙ্গে শিক্ষার্থীর চাপ বেড়ে যাওয়ায় আরও বেশি ভোগান্তির আশঙ্কা করছে তারা। বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের দেয়া তথ্যমতে এ বছর সবমিলিয়ে বিদ্যালয়ে পাঁচ শতাধিক শিক্ষার্থী ভর্তি হয়েছে।

জানাযায়, ২০১৯-২০ অর্থ বছরের এ কাজটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান “ইউটি মং কন্সটাকশন” পায়। ২ বছরের মধ্যে কাজ শেষ করার কথা থাকলেও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কাজের ধীরগতি ও গাফিলতির কারণে দীর্ঘ পাঁচ বছর পেরিয়ে গেলেও নির্দিষ্ট সময়ে কাজ শেষ করতে পারেনি।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সজিত বরণ বড়ুয়া জানায়, প্রায় পাঁচ শতাধিক শিক্ষার্থী নিয়ে আসন সংকটে পাঠদান দিতে হিমশিম খাচ্ছি আমরা। বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে একাধিকবার অবগত করলেও আজ হবে, কাল হবে বলে এখনো কোনো সুফল পাইনি আমরা।

এ বিষয়ে জেলা শিক্ষা প্রকৌশল প্রেসলি চাকমা জানায়, বৈশ্বিক মন্দা সহ বিভিন্ন কারণে কাজটি পিছিয়ে গেছে। আমরা ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের সাথে কথা বলে দ্রুত চেষ্টা করছি কাজটি সম্পূর্ণ করার জন্য।

বিষয়টি নিয়ে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষের সাথে মুঠোফোনে একাধিক বার কল করেও কোনো সদুত্তর পাওয়া যায়নি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ