• শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৩:৫৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
আসছে সামনে ঈদুল আযহা উপলক্ষে কোরবানির গরুর হাট কাপ্তাই থানা পুলিশ এর অভিযানে চট্টগ্রামের বাকলিয়া হতে পলাতক আসামি গ্রেফতার সিন্দুকছড়ি সেনা জোনের পক্ষ থেকে ঈদ উপহার ও মানবিক সহায়তা প্রদান ঈদুল আযহা উপলক্ষে কাপ্তাই জোনের ত্রাণ সামগ্রী সহায়তা প্রদান  মাটিরাঙায় প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন ইউএনও আলীকদম সেনা জোন (৩১ বীর) কর্তৃক ২,৬৬,৬০৫ টাকা আর্থিক অনুদান প্রদান নিজের কণ্ঠস্বর বিক্রি করে সফলতা অর্জন রামগড়ে বাগান শ্রমিকের মরদেহ উদ্ধার রামগড় কৃষি গবেষণা কেন্দ্রের জঙ্গলে পড়েছিল শ্রমিকের মরদেহ কাপ্তাইয়ে পাহাড় ধ্বসের  আজ ৭ বছর : এখনোও ঝুঁকিতে বসবাস করছে বহু মানুষ রাজধানীর পল্টনে বহুতল ভবনে আগুন চট্রগ্রামে শপথ নিলেন রাজস্থলী উপজেলার চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানরা

নকলায় খাল খননের উদ্যোগের প্রতিবাদে কৃষকদের মানববন্ধন

এফ এম সিফাত হাসান, জেলা প্রতিনিধি,শেরপুর: / ১৭৯২ জন পড়েছেন
প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০২৩

এফ এম সিফাত হাসান,জেলা প্রতিনিধি,শেরপুর:

শেরপুর জেলার নকলা উপজেলার চন্দ্রকোনা মৃগী নদীর মোহনা থেকে মেহেদীডাঙ্গা পর্যন্ত খাল খনন প্রকল্প বাস্তবায়নের উদ্যোগের ২৫ ডিসেম্বর (সোমবার) দুপুরে উপজেলার হুজুরীকান্দা এলাকায় ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন করেছেন স্থানীয় কৃষকরা।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন সাবেক ইউপি সদস্য মো. ছোবাহান, কৃষক আনছর আলী, নবাব আলী, আব্দুল আওয়াল, তৈয়ব আলীসহ স্থানীয় কৃষকরা।
ওইসময় বক্তারা বলেন, পর্যাপ্ত সেচের ব্যবস্থা থাকায় এখানকার কৃষি জমিতে বছরে ৩টি ফসল আবাদ করেন কৃষকরা। এখানে অপ্রয়োজনীয় খাল খনন করা হলে আশপাশের ৩টি গ্রামের কৃষকরা ক্ষতিগ্রস্ত হবেন।

এছাড়া অনেকেই খালের জন্য জমি হারিয়ে ভূমিহীন হয়ে পড়বেন। ক্ষতিগ্রস্ত হবেন ৩ গ্রামের ৪/৫ হাজার মানুষ। তারা আরও বলেন, এই খাল খনন প্রকল্পে যাদের সদস্য করা হয়েছে, তাদের অধিকাংশেরই এখানে জমি-জমা নেই। তাই তারা কৃষকদের জন্য অপ্রয়োজনীয় এ প্রকল্পটি বাদ দেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি অনুরোধ জানান। মানববন্ধনে হুজুরীকান্দা, জানকীপুর ও বন্দটেকি এলাকার প্রায় আড়াইশ কৃষক উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, ২০২২-২৩ অর্থ বছরের বরাদ্দকৃত শেরপুরের নকলা উপজেলার চন্দ্রকোনা মৃগী নদীর মোহনা থেকে মেহেদীডাঙ্গা পর্যন্ত একটি খাল খনন প্রকল্প হাতে নেয় এলজিইডি। খাল খননের জন্য ইতোমধ্যে জমি মার্কিং করা হয়েছে। এ প্রকল্পটিকে বন্ধের জন্য ইতোমধ্যে পানি উন্নয়ন বোর্ডের মহাপরিচালক, শেরপুরের জেলা প্রশাসক, নকলা উপজেলা চেয়ারম্যান, নকলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, এলজিইডির উপজেলা প্রকৌশলীসহ বিভিন্ন দপ্তরে এলাকাবাসী স্বাক্ষরিত চিঠি দেওয়া হয়েছে।

নকলা উপজেলা প্রকৌশলী আরেফিন পারভেজ জানান, চন্দ্রকোনায় আমাদের কোন খাল খনন প্রকল্প চলছে না। তবে সেখানে খাল খননের জন্য একটি প্রস্তাবনা পাঠানো আছে। তবে এখন পর্যন্ত সেটির কোন অগ্রগতি হয়নি। এরপরও এলাকাবাসীর কোন আপত্তি থাকলে তারা আমার সাথে বা উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করে বিষয়টি জানাতে পারে।

এ ব্যাপারে নকলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া উম্মুল বানিন বলেন, যেহেতু জনস্বার্থের কাজ, জনগণের মতামত ও তাদের সাথে বলে যেভাবে সুবিধা হয় সেভাবে করতে হবে। জনগণ না চাইলে সেখানে কাজ করার সুযোগ নেই।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ