• বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ০৯:৪৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম
বেলকুচি উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত শিক্ষার্থীদের শিক্ষা অর্জনের মাধ্যমে নিজকে গড়ে তুলে স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনে ভুমিকা রাথতে হবে -বাবুল দাস কাপ্তাই জাতীয় উদ্যানে লজ্জাবতী বানর অবমুক্ত কাপ্তাই বিএসপিআই শিক্ষার্থীদের ওপর ফের হামলা, ৪ জন আহত এম কে বাঘাবাড়ী ঘি কোম্পানির উৎপাদনকারী মো: কামাল উদ্দিনের ১ বছরের কারাদণ্ড কোটা সংস্কারের দাবিতে  কাপ্তাই বিএসপিআই এ শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল দিনেদুপুরে কৃষকের বাড়িতে হামলা লুটপাট রাঙামাটি সদর জোনের বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ঔষধ প্রদান আলীকদম সেনা জোন কর্তৃক মানবিক সহায়তা প্রদান পানছড়ি মাদ্রাসায় অব্যবস্থাপনা ও অবৈধ নিয়োগ বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন খাগড়াছড়িতে মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচারবিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস উপলক্ষ্যে র‍্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত কাপ্তাইয়ে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা প্রাথমিক বিদ্যালয়  ফুটবল টুর্ণামেন্ট শুরু 

তেল জাতিয় ফসল বৃদ্ধি প্রকল্পে নানিয়ারচরে কারিগরি আলোচন

মেহেদী ইমাম, নানিয়ারচর প্রতিনিধিঃ / ২১৯ জন পড়েছেন
প্রকাশিত : বুধবার, ৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২২

তেল জাতিয় ফসল উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্পের আওতায় রাঙামাটির নানিয়ারচরে মাঠ দিবস ও কারিগরি আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাস্তবায়িত প্রকল্প প্রদর্শনীর অংশ হিসেবে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বুধবার সকালে বুড়িঘাট ইউনিয়নের রামহরি পাড়া এলাকায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাঙামাটি কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক তপন কুমার পাল।

নানিয়ারচর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) টিপু সুলতান এর সভাপতিত্বে এসময় অন্যান্যের মাঝে অতিরিক্ত উপ-পরিচালক (শস্য) আপ্রু মারমা, হেডম্যান সুবিরু দেওয়ান, সাংবাদিক ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তপন কুমার বলেন, কম খরচে নিজের ফশলি জমিতে বারি সরিষা ১৪ উৎপাদনে কৃষক ব্যপক লাভবান হবেন। সরিষা একটি লাভজনক চাষ। কৃষকরা ব্যবহার করে বাড়তি সরিষা বিক্রি করতে পারবেন। পাশাপাশি রানী মৌমাছির বাসা স্থাপন করে মধু উৎপাদন করেও লাভবান হতে পারেন।

অনুষ্ঠানে প্রকল্প প্রদর্শনীর সুবিধাভোগীরা বক্তব্যে বারি সরিষা-১৪ চাষে অভিজ্ঞতা তুলে ধরেন। পাশাপাশি কৃষি কর্মকর্তাগণ লাভজনক ফসল সরিষা চাষে কারিগরি আলোচনা করেন।

সুবিধাভোগী ৭জন কৃষককে তেল জাতিয় ফসল উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্পের আওতায় ৫০শতক জমিতে দেড় কেজি বিজ, প্রয়োজনীয় সার ও পরিচর্যা খরচ দেওয়া হয়েছে। সরিষা, বোরো ও রোপা আমন ক্রপিং প্যাটার্নে সারা বছর তাদের জমিতে ফসল আবাদ করে সুবিধাভোগী এসব কৃষকরা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ