• শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ০৯:৪৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
মাটিরাঙায় প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন ইউএনও আলীকদম সেনা জোন (৩১ বীর) কর্তৃক ২,৬৬,৬০৫ টাকা আর্থিক অনুদান প্রদান নিজের কণ্ঠস্বর বিক্রি করে সফলতা অর্জন রামগড়ে বাগান শ্রমিকের মরদেহ উদ্ধার রামগড় কৃষি গবেষণা কেন্দ্রের জঙ্গলে পড়েছিল শ্রমিকের মরদেহ কাপ্তাইয়ে পাহাড় ধ্বসের  আজ ৭ বছর : এখনোও ঝুঁকিতে বসবাস করছে বহু মানুষ রাজধানীর পল্টনে বহুতল ভবনে আগুন চট্রগ্রামে শপথ নিলেন রাজস্থলী উপজেলার চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানরা পাংশায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানাভুক্ত ৬ আসামি গ্রেপ্তার  রামগড় ৪৩ বিজিবির অভিযানে ভারতীয় মদ জব্দ কাপ্তাই নতুনবাজার আনন্দ মেলা গরুর বাজার: পাহাড়ি গরুর চাহিদা বেশী ক্রেতাদের কাপ্তাই সেনা জোনের উদ্যোগে  বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান

একদফা আন্দোলনের ঘোষণা বিএনপির

মাসুদ রানা, স্টাফ রিপোর্টার / ১১৫ জন পড়েছেন
প্রকাশিত : বুধবার, ১২ জুলাই, ২০২৩

বর্তমান সরকারের পদত্যাগ, সংসদ বিলুপ্তি, তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রতিষ্ঠা ও খালেদা জিয়াসহ সব রাজবন্দির মুক্তির দাবিতে এক দফা আন্দোলনের চূড়ান্ত ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি।

বুধবার (১২ জুলাই) বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে আয়োজিত সমাবেশ থেকে এই ঘোষণা দেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, এক দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে আগামী ১৮ জুলাই ঢাকা মহানগরীসহ সারাদেশে মহানগরী ও জেলা পর্যায়ে পদযাত্রা হবে। এ পদযাত্রার মধ্য দিয়ে তাদের পতন তরান্বিত করা। রাজধানীতে এ পদযাত্রা হবে দুই দিন। ১৮ জুলাই সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা গাবতলী থেকে যাত্রাবাড়ী পর্যন্ত পদযাত্রা হবে। ১৯ জুলাই সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা উত্তরার আবদুল্লাপুর থেকে পুনার ঢাকার বাহাদুরশাহ পার্ক পর্যন্ত পদযাত্রা। একেবারে শান্তিপূর্ণভাবে এ পদযাত্রা হবে। এটা আমাদের প্রাথমিক কর্মসূচি।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আশা করি আমরা কর্মসূচি পালন করার আগেই আপনারা (আওয়ামী লীগ সরকার) দাবি মেনে নিয়ে তত্ত্বাবধায়ক সরকার ফিরিয়ে দেবেন এবং পদত্যাগ করে বিদায় নেবেন। তা না হলে আরও কঠোর কর্মসূচির মাধ্যমে আপনাদের সরিয়ে দেওয়া হবে।

মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা অনেক কথা বলেছি। এখন আর আমাদের কথা বলার সময় নেই। আমাদের এখন একটাই কাজ। সেটা হলো এই ভয়াবহ লুটেরা, ফ্যাসিস্ট, সংবিধানলঙ্ঘনকারী, যারা আমাদের মানুষের সমস্ত অর্জনগুলো কেড়ে নিয়েছে, তাদেরকে সরিয়ে দেওয়া।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমরা নির্বাচন চাই। অবশ্যই নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতার পরিবর্তন চাই। কিন্তু সেই নির্বাচন আপনার মতো শেয়ালের হাতে চাই না। কারণ আপনি তো কুমিরের বাচ্চাটাকে বার বার একই কায়দায় খেয়ে ফেলবেন। ২০১৪ ও ২০১৮ সালে খেয়েছেন। এখন আরেকবার খেতে চাচ্ছেন। পুলিশ-প্রশাসন সব তারা নিজেদের মতো সাজাচ্ছে। যখন জনতা জেগে ওঠে তখন আর এসব কাজ করে না। সুনামি যখন আসে তখন কি দেয়াল তা রুখে দিতে পারে। ঝড় যখন আসে তখন কি বাঁশ দিয়ে ঠেকিয়ে রাখা যায়, যায় না। আজকে বাংলাদেশের জনগণের প্রতিবাদের সুনামি শুরু হয়েছে। এই সমাবেশই তার প্রমাণ।

তিনি আরও বলেন, ব্যাংকগুলো খালি হয়ে গেছে। টাকা পাচার হয়ে গেছে দেশের বাহিরে। বিশেষ করে আমেরিকায়। আর যেই আমেরিকায় স্যাংশন দিয়েছে। তখন সেই টাকা বাঁচানোর জন্য আবার ফেরত আনা হচ্ছে।

,মির্জা ফখরুল বলেন, প্রায় ৩৪টির মতো দল ও জোট সিদ্ধান্ত নিয়েছি সর্বসম্মতভাবে সরকারের পদত্যাগের একদফা আন্দোলনে নামার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এই সংগ্রাম অস্তিত্বের সংগ্রাম। এই সংগ্রাম ১৮ কোটি মানুষের সংগ্রাম।

এর আগে, দুপুর ২টায় বিএনপির সমাবেশ শুরু হয়। সমাবেশকে কেন্দ্র করে এদিন সকাল থেকেই ঢাকাসহ আশপাশের বিভিন্ন এলাকা থেকে ব্যানার, ফেস্টুনসহ খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে বিএনপি এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা নয়াপল্টনে জড়ো হতে শুরু করেন।

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন ঢাকা উত্তর বিএনপির আহ্বায়ক আমানউল্লাহ আমান।

পার্বত্যকন্ঠ নিউজ/এমএস


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ