শনিবার, ১০ ডিসেম্বর ২০২২, ১০:৫৮ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ

হ্যাঁ, এলাকা আমার, খবর আমার, পত্রিকা আমার। সাফল্যের ২ বছর শেষে ৩ তম বছরে দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ। নতুন বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে সবচেয়ে বেশি স্থানীয় সংস্করন নিয়ে "দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ" বিশ্লেষন আমাদের, সিদ্ধান্ত আপনার। দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ পত্রিকায় শুন্য পদে সংবাদদাতা নিয়োগ চলছে। আপনার এলাকায় শুন্য পদ রয়েছে কিনা জানতে কল করুনঃ 01647627526 অথবা ইনবক্স করুন আমাদের পেইজে। ভিজিট করুনঃ parbattakantho.com দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ। সত্য প্রকাশে সাহসী যোদ্ধা আমরা নতুন বাংলাদেশ গড়বো

মানিকছড়িতে ধর্ষণের অভিযোগে ইমাম গ্রেফতার

মানিকছড়ি (খাগড়াছড়ি) প্রতিনিধি:
  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই, ২০২১
  • ২৪০ জন পড়েছেন

খাগড়াছড়ির মানিকছড়িতে মক্তবের ছাত্রীকে (১৪) ধর্ষণের অভিযোগে মাওলানা মো. ওয়াছি উদ্দিন (২৬) নামে মসজিদের এক ইমামকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত ওয়াছি মানিকছড়ির গাড়ীটানা এলাকার গরমছড়ি জামে মসজিদের ইমাম এবং ফটিকছড়ির ভুজপুরের চানপুর গ্রামের মো. আলী হোসেনের ছেলে।

পুলিশ জানায়, মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে বুধবার (২৮ জুলাই) মানিকছড়ি থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ভিকটিমের পিতার দায়ের করা মামলায় ওই ইমামকে গ্রেফতার করা হয়। মেডিকেল পরীক্ষার জন্য ভিকটিমকে বুধবার (২৮ জুলাই) খাগড়াছড়ি জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

খবর পেয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান মো. জয়নাল আবেদীন ও স্থানীয় ইউপি মেম্বার আব্দুল মতিন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। তারা ওই শিশু শিক্ষার্থীকে (মক্তব ছাত্রী) জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে ইমামের সাথে অনৈতিক কর্মকাণ্ডের কথা স্বীকার করে। সে জনপ্রতিনিধিদের বলে, ‘হুজুর অনেক আগ থেকে আমাকে মোবাইল ফোনে ম্যাসেজে প্রেমের প্রস্তাব দেয় এবং একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে। এসময় ইমাম মো. ওয়াছি উদ্দিন ম্যাসেজের কথা স্বীকার করলেও অবৈধ শারীরিক সম্পর্কের অভিযোগ অস্বীকার করেন। জনপ্রতিনিধিদের পরামর্শে ওই ছাত্রীর পিতা আব্দুল আহাদ বাদি হয়ে মসজিদের ইমাম মাওলানা ওয়াছি উদ্দিনের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মানিকছড়ি থানায় বুধবার (২৮ জুলাই) মামলা দায়ের করেন। (মামলা নং- ৪, তারিখ- ২৮.৭.২০২১খ্রি.)।

মানিককছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শাহনূর আলম বলেন, ধর্ষণ মামলার আসামি মাওলানা মো. ওয়াছি উদ্দিনকে গ্রেফতার করে বুধবার খাগড়াছড়ি জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে এবং মেডিকেল পরীক্ষার জন্য ভিকটিমকে জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এই পোর্টালের কোনো খেলা বা ছবি ব্যাবহার দন্ডনীয় অপরাধ।
কারিগরি সহযোগিতায়: ইন্টাঃ আইটি বাজার
iitbazar.com