• মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:১০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
মাদক থেকে দূরে রাখতে খেলাধুলার বিকল্প নেই- বীর বাহাদুর মানিকছড়ি ইংলিশ স্কুলে বার্ষিক ক্রীড়া ও পুরস্কার বিতরণ বেলকুচি থানায় পুলিশ সুপার কাপ ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্ট ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত চট্টগ্রাম ইপিজেড থানা দ্বি-বার্ষিক পরিদর্শনে (অতিরিক্ত আইজিপি) কৃষ্ণপদ রায় মহেশখালীতে বিসিএস সুপারিশপ্রাপ্ত ৭ ক্যাডার’কে শুভেচ্ছা জানালেন ইউএনও সোনাগাজীতে ইউনাইটেড প্রিমিয়ার লীগের ফাইনাল খেলা ও পুরস্কার বিতরণ ঢাবিতে ভর্তিচ্ছুকদের জন্য পিসিসিপি ‘হেল্প ডেস্ক’ মানিকছড়িতে উপ-নির্বাচন প্রতীক পেয়ে প্রচারণায় প্রার্থীরা বান্দরবানে ২৫ এবং ৫২ কিলোমিটার ম্যারাথন দৌড়ে আলমগীর হোসেন ও আব্দুর রহমান প্রথম লংগদুতে সেনা জোনের উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ

ভাসান্যদম ইউপির মূল সড়কের তিনটি ব্রীজ ঝুঁকি পূর্ণ

মোঃ আলমগীর হোসেন,লংগদু (রাঙামাটি) / ৫৮৬ জন পড়েছেন
প্রকাশিত : বুধবার, ১২ আগস্ট, ২০২০

মোঃ আলমগীর হোসেন,লংগদু (রাঙামাটি)
রাঙ্গামাটির লংগদু উপজেলার বিভিন্ন এলাকাতে প্রায় সড়ক পথ গুলো প্রধান সমস্যা হয়ে দাড়িয়েছে।

লংগদু উপজেলার ৫নং ভাসান্যদম ইউপির ৪নংওয়ার্ড ভাসান্যদম ইসলামী উচ্চবিদ্যালয় সংলগ্ন একটি, ৬নং বড় মাঠ সংলগ্ন একটি, এবং ৭নং রাঙ্গাপানি ছড়া এলাকার একটি ব্রীজ মারাত্মকভাবে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে দাড়িয়েছে।

এ তিনটি ব্রীজ যে কোন সময় ভেঙ্গে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে, আর তিনটি থেকে একটিও যদি ভেঙ্গে পড়ে তাহলে চারপাশের জনগনের সাথে ইউনিয়ন সদরের যোগাযোগব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বে। সব গুলো ব্রীজের একটির হাতল গুলো ঝড়ে পড়েগেছে,একটির মধ্যেখানের ফিলার ভেঙ্গে পড়েছে,অন্যটির হাতল ও দু পাশের মাটি সরে পড়েছে।

৫নং ভাসান্যদম ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ হযরত আলী বলেন, আমরা এসব ব্রীজ গুলোর ব্যাপারে জেলা পরিষদ,এলজিইডি,উপজেলা এলজিইডিতে বিভিন্ন ভাবে আবেদন করেছি, কিন্তু কোন সমাধান হয়নি।

তিনি বলেন আমাদের এলাকা গুলো এমনিতেই দুর্গম পাহাড়ি এলাকা, এসব এলাকার মানুষ গুলো সর্বদা দুঃখ কষ্টের মাধ্যমে জীবন পরিচালনা করছে। তার মধ্যে যদি মূল সড়ক গুলো মেরামত করা না হয় তাহলে এদুর্গম পাহাড়ি এলাকার সাধারণ মানুষের দুঃখ, কষ্টের শেষ থাকবেনা। এমন কি ৪নং ওয়র্ডের ভাসান্যদম স্কুলের পাশের ব্রীজটি অতীদ্রুত কাজ না হলে যে কোন সময় স্কুলের ছোট ছোট ছাত্র/ছাত্রীরা এক্সিডেন্ট হতে পারে।

চেয়ারম্যান আরো জানান এ ব্রীজ গুলোর বয়স অনেক হয়েছে ৪নং ওয়ার্ডের ব্রীজটি ১৯৯৩,  ৬নং ওয়ার্ডের ব্রীজটি ১৯৯৯, ও ৭নং ওয়ার্ডের ব্রীজটি ১৯৯৭ সনে এলজিইডির মাধ্যমে নির্মিত হয়েছিলো।যার ফলে এগুলো বর্তমানে চলাচলের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে।স্থানীয় খাড়ছড়ি বাজারে হাটের দিনে অনেক গাড়ি চলাচল করে উক্ত ব্রীজ গুলো দিয়ে যা সকলের জীবনের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ।

উক্ত এলাকার সাধারণ মানুষের দাবী বিশেষ করে স্কুল সংলগ্ন দুটি ব্রীজের কাজ যেনো পুনরায় মেরামত করে সম্পূর্ণ করা হয়,ছাত্র-ছাত্রীদের যাতায়তের স্বার্থে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ