• বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ০৮:৪৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম
কাপ্তাইয়ে বুদ্ধ পূর্ণিমায় বিভিন্ন বিহারে  দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনায় প্রার্থনা রাঙামাটিতে ইউপি চেয়ারম্যান গুলিবিদ্ধ লংগদুতে দাখিল পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের সংর্বধনা প্রদান ৬ষ্ঠ দীঘিনালা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী যারা লামায় শ্রমিকবাহী পিকআপ উল্টে নিহত ১, আহত ৭ পানছড়িতে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী হয়েছেন যারা রাজস্থলী উপজেলা নির্বাচনঃ চেয়ারম্যান পদে বিপুল ভোটে জয়ী উবাচ মারমা লামা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী হলেন যারা কাপ্তাই উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান নাছির উদ্দীন, ভাইস চেয়ারম্যান সুইপ্রু মারমা   চোখের জলে অবসরে গেলেন শিক্ষক রবি মোহন চাকমা মাটিরাঙ্গায় বিষপানে মোটরসাইকেল চালকের মৃত্যু কাপ্তাই জাতীয় উদ্যানে ৮ ফুট লম্বা অজগর সাপ অবমুক্ত 

ভাসান্যদম ইউপির মূল সড়কের তিনটি ব্রীজ ঝুঁকি পূর্ণ

মোঃ আলমগীর হোসেন,লংগদু (রাঙামাটি) / ৬৩৪ জন পড়েছেন
প্রকাশিত : বুধবার, ১২ আগস্ট, ২০২০

মোঃ আলমগীর হোসেন,লংগদু (রাঙামাটি)
রাঙ্গামাটির লংগদু উপজেলার বিভিন্ন এলাকাতে প্রায় সড়ক পথ গুলো প্রধান সমস্যা হয়ে দাড়িয়েছে।

লংগদু উপজেলার ৫নং ভাসান্যদম ইউপির ৪নংওয়ার্ড ভাসান্যদম ইসলামী উচ্চবিদ্যালয় সংলগ্ন একটি, ৬নং বড় মাঠ সংলগ্ন একটি, এবং ৭নং রাঙ্গাপানি ছড়া এলাকার একটি ব্রীজ মারাত্মকভাবে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে দাড়িয়েছে।

এ তিনটি ব্রীজ যে কোন সময় ভেঙ্গে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে, আর তিনটি থেকে একটিও যদি ভেঙ্গে পড়ে তাহলে চারপাশের জনগনের সাথে ইউনিয়ন সদরের যোগাযোগব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়বে। সব গুলো ব্রীজের একটির হাতল গুলো ঝড়ে পড়েগেছে,একটির মধ্যেখানের ফিলার ভেঙ্গে পড়েছে,অন্যটির হাতল ও দু পাশের মাটি সরে পড়েছে।

৫নং ভাসান্যদম ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ হযরত আলী বলেন, আমরা এসব ব্রীজ গুলোর ব্যাপারে জেলা পরিষদ,এলজিইডি,উপজেলা এলজিইডিতে বিভিন্ন ভাবে আবেদন করেছি, কিন্তু কোন সমাধান হয়নি।

তিনি বলেন আমাদের এলাকা গুলো এমনিতেই দুর্গম পাহাড়ি এলাকা, এসব এলাকার মানুষ গুলো সর্বদা দুঃখ কষ্টের মাধ্যমে জীবন পরিচালনা করছে। তার মধ্যে যদি মূল সড়ক গুলো মেরামত করা না হয় তাহলে এদুর্গম পাহাড়ি এলাকার সাধারণ মানুষের দুঃখ, কষ্টের শেষ থাকবেনা। এমন কি ৪নং ওয়র্ডের ভাসান্যদম স্কুলের পাশের ব্রীজটি অতীদ্রুত কাজ না হলে যে কোন সময় স্কুলের ছোট ছোট ছাত্র/ছাত্রীরা এক্সিডেন্ট হতে পারে।

চেয়ারম্যান আরো জানান এ ব্রীজ গুলোর বয়স অনেক হয়েছে ৪নং ওয়ার্ডের ব্রীজটি ১৯৯৩,  ৬নং ওয়ার্ডের ব্রীজটি ১৯৯৯, ও ৭নং ওয়ার্ডের ব্রীজটি ১৯৯৭ সনে এলজিইডির মাধ্যমে নির্মিত হয়েছিলো।যার ফলে এগুলো বর্তমানে চলাচলের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে।স্থানীয় খাড়ছড়ি বাজারে হাটের দিনে অনেক গাড়ি চলাচল করে উক্ত ব্রীজ গুলো দিয়ে যা সকলের জীবনের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ।

উক্ত এলাকার সাধারণ মানুষের দাবী বিশেষ করে স্কুল সংলগ্ন দুটি ব্রীজের কাজ যেনো পুনরায় মেরামত করে সম্পূর্ণ করা হয়,ছাত্র-ছাত্রীদের যাতায়তের স্বার্থে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ