• শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০৪:৫৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
আসছে সামনে ঈদুল আযহা উপলক্ষে কোরবানির গরুর হাট কাপ্তাই থানা পুলিশ এর অভিযানে চট্টগ্রামের বাকলিয়া হতে পলাতক আসামি গ্রেফতার সিন্দুকছড়ি সেনা জোনের পক্ষ থেকে ঈদ উপহার ও মানবিক সহায়তা প্রদান ঈদুল আযহা উপলক্ষে কাপ্তাই জোনের ত্রাণ সামগ্রী সহায়তা প্রদান  মাটিরাঙায় প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন ইউএনও আলীকদম সেনা জোন (৩১ বীর) কর্তৃক ২,৬৬,৬০৫ টাকা আর্থিক অনুদান প্রদান নিজের কণ্ঠস্বর বিক্রি করে সফলতা অর্জন রামগড়ে বাগান শ্রমিকের মরদেহ উদ্ধার রামগড় কৃষি গবেষণা কেন্দ্রের জঙ্গলে পড়েছিল শ্রমিকের মরদেহ কাপ্তাইয়ে পাহাড় ধ্বসের  আজ ৭ বছর : এখনোও ঝুঁকিতে বসবাস করছে বহু মানুষ রাজধানীর পল্টনে বহুতল ভবনে আগুন চট্রগ্রামে শপথ নিলেন রাজস্থলী উপজেলার চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানরা

রামগড়ে এসিল্যান্ডের বিরুদ্ধে নামজারি মামলার শুনানিতে ঘুষ দাবী; ভুক্তভোগীর সংবাদ সম্মেলন

মাসুদ রানা, রামগড় (খাগড়াছড়ি) প্রতিনিধিঃ / ৮৮ জন পড়েছেন
প্রকাশিত : শনিবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২৩

মোঃ মাসুদ রানা, রামগড় (খাগড়াছড়ি) প্রতিনিধি:

খাগড়াছড়ি জেলার রামগড় উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মানস চন্দ্র দাসের বিরুদ্ধে ঘুষ চাওয়ার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন করেছেন স্থানীয় এক ভূক্তভোগী।

শনিবার দুপুরে রামগড়স্থ গৌধুলী রেঁস্তোরায় এই সংবাদ সম্মেলন করেন ভুক্তভোগী জহর লাল ও তার স্ত্রী উমা রাণী ঘোষ।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে জহর লাল বলেন, তার নামে উপজেলার ২৩৫নং নাকাপা মৌজায় ৩৭২/ক নং হোল্ডিংভূক্ত ০.২০ (বিশ শতক) একর ৩য় শ্রেণির ভূমি রেকর্ডভূক্ত আছে। জমিতে পরিবার নিয়ে বসবাস করছেন দীর্ঘ অনেক বছর। জমির খাজনা, জমাবন্দি, হেডম্যান রিপোর্ট, ভুমি অফিসের সার্ভেয়ার কানুনগো রিপোর্ট সবকিছু তারই অনুকুলে আছে। সে জমি তিনি অসুস্থতাজনীত কারনে তার স্ত্রীকে দান করতে চেয়ে ২০২১ সালে ভূমি কার্যালয়ে আবেদন করেন। যার মামলা নম্বর রামগড় ভূমি নামজারি মামলা ৩৮৩/রাম। পরবর্তীতে তার সৎ বোন নামজারী মামলার বিরুদ্ধে ভূমি কার্যালয়ে অভিযোগ দেন। অভিযোগের ভিত্তিতে দুইবার শুনানীও হয়। মামলার প্রতিবেদনের জন্য এসিল্যান্ডের কার্যালয়ে তাকে একাধিকবার ডাকা হয় এবং জনৈক প্রমথ বিহারির মাধ্যমে ৭ লক্ষ টাকা দাবি করা হয়। ৭ লক্ষ টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করায় এডিএম কোর্টে তার সৎ বোনকে দিয়ে মামলা করা হয়। তিনি আরো জানান, মামলার পর এসিল্যান্ডের কার্যালয়ে প্রতিবেদনের জন্য গেলে এসিল্যান্ড নিজেই ৪ লক্ষ টাকা দাবি করেন এবং টাকা না দিলে ভূমিটি খাস করে দিবেন বলে হুমকি দেন। তিনি আরো জানান, নামজারি মামলার ৩৮৩/রাম শুনানির প্রতিবেদনে মোটা অংকের ঘুষ চাওয়া ও প্রতিবেদন না দিয়ে নানা হয়রানি করার প্রতিবাদে তার এই সংবাদ সম্মেলন।

ঘুষ এবং হয়রানির অভিযোগটি উর্ধ্বতন কোন কর্মকর্তাকে জানানো হয়েছে কিনা সাংবাদিকদের এ প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, এসিল্যান্ড সাহেব তাকে বলেছেন তার বদলির আগে শুনানিটা করে দিয়ে যাবেন কিন্তু কয়েকদিন আগে তিনি জানতে পারেন এসিল্যান্ড সাহেব বদলি হয়ে করেকদিনের মধ্যে অন্যত্র চলে যাচ্ছেন। এজন্য তিনি কাউকে বিষয়টি জানাতে পারেননি। তবে সহসা তিনি লিখিতভাবে অভিযোগ জানাবেন।

এ বিষয়ে জানতে উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মানস চন্দ্র দাসের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, অভিযোগ সম্পূর্ণ মনগড়া এবং ভিত্তিহীন। বিষয়টি সম্পূর্ণ মানবিক। জহর লাল তার বোন কে সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করতে চায়। তার বোন অভিযোগ দিলে বিষয়টি আমরা তদন্ত করে দেখি। তদন্তে তার বোনকে সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করার বিষয়টি প্রাথমিকভাবে প্রমানিত হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে জহরলাল সংবাদ সম্মেলন করে থাকতে পারে। এটি সম্পূর্ণ ষড়যন্ত্র।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মমতা আফরিন এর নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, ব্যাপারটি আমি শুনেছি। তবে আমি বা জেলা প্রশাসক স্যারের নিকট কোন অভিযোগ দেননি ভুক্তভোগী। তিনি আরো বলেন, জহর লালের কাগজপত্র সঠিক নেই ,ওয়ারিশগনদের বাদ দিয়েছেন। এসিল্যান্ড ব্যক্তিগত পরীক্ষার দিতে ছুটিতে ঢাকা অবস্থান করছেন। এছাড়াও  বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে বলে জানান।

পার্বত্যকন্ঠ নিঊজ/রনি


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ