• শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ০৯:৫৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
মাটিরাঙায় প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন ইউএনও আলীকদম সেনা জোন (৩১ বীর) কর্তৃক ২,৬৬,৬০৫ টাকা আর্থিক অনুদান প্রদান নিজের কণ্ঠস্বর বিক্রি করে সফলতা অর্জন রামগড়ে বাগান শ্রমিকের মরদেহ উদ্ধার রামগড় কৃষি গবেষণা কেন্দ্রের জঙ্গলে পড়েছিল শ্রমিকের মরদেহ কাপ্তাইয়ে পাহাড় ধ্বসের  আজ ৭ বছর : এখনোও ঝুঁকিতে বসবাস করছে বহু মানুষ রাজধানীর পল্টনে বহুতল ভবনে আগুন চট্রগ্রামে শপথ নিলেন রাজস্থলী উপজেলার চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানরা পাংশায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানাভুক্ত ৬ আসামি গ্রেপ্তার  রামগড় ৪৩ বিজিবির অভিযানে ভারতীয় মদ জব্দ কাপ্তাই নতুনবাজার আনন্দ মেলা গরুর বাজার: পাহাড়ি গরুর চাহিদা বেশী ক্রেতাদের কাপ্তাই সেনা জোনের উদ্যোগে  বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান

আমদানির পরও কাঁচামরিচের বাজার চড়া

মাসুদ রানা, বিশেষ প্রতিনিধি: / ১৭০ জন পড়েছেন
প্রকাশিত : শুক্রবার, ৭ জুলাই, ২০২৩

মাসুদ রানা, বিশেষ প্রতিনিধি:

আমদানির পরও রাজধানীর বাজারে চড়া দামেই বিক্রি হচ্ছে কাঁচামরিচ। শুক্রবার রাজধানীর কারওয়ান বাজারে, পাইকারিতে কাঁচামরিচ ১৭০ থেকে ১৯০ টাকা কেজিতে বিক্রি হলেও খুচরা বাজারে মানভেদে তা বিক্রি হচ্ছে ২৪০ থেকে ২৮০ টাকায়। বাজারে অন্যান্য পণ্যের দামও বাড়তি।

বিক্রেতারা বলছেন, বৃষ্টির কারণে আমদানি পণ্য ঢাকায় আসেনি, আর এজন্য মরিচের দাম বেড়েছে। তবে, ক্রেতারা বলছেন, আমদানি করা পণ্যকে ধরেই সিন্ডিকেট কারসাজি চলছে।

ঈদের পর পর মরিচের দামের ঝালে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছিল রাজধানীর বিভিন্ন কাঁচাবাজার। এরপর ভারত থেকে আমদানি শুরু হলে কাঁচামরিচের দাম ৬০০-৭০০ থেকে কমে দাঁড়ায় কেজি প্রতি ২০০ টাকায়।

তবে, এখন আবারো দাম বাড়তি কাচাঁমরিচসহ বাজারের অন্যান্য পণ্যের। রাজধানীর কারওয়ান বাজারে মানভেদে খুচরায় কাঁচামরিচ বিক্রি হচ্ছে কেজি প্রতি ২৪০ থেকে ২৮০ টাকায়। আলু এখনও বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ৪০ থেকে ৫০ টাকা আর বেগুনের দাম কেজি প্রতি ৮০ থেকে ১০০ টাকা।

ভোক্তারা বলছেন, ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেটের মাধ্যমে কারসাজি করে বাজার অস্থির করে রেখেছে। অন্যদিকে, অভিযান চললেও তা পণ্যের দাম কমাতে যথার্থ নয়।

সম্প্রতি, কাঁচা মরিচসহ এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মজুদ ও মূল্য তদারকির লক্ষ্যে সারাদেশের ৩৮টি বাজারে অভিযান চালিয়ে ৯০টি প্রতিষ্ঠানকে ৬ লাখ ৫ হাজার ৫শ টাকা জরিমানা করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

পার্বত্যকন্ঠ নিউজ/রনি


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ