• শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ০২:০১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
মাটিরাঙায় জাতীয় বীমা দিবস উদযাপন জাতীয় বীমা দিবসে মানিকছড়িতে শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা ১নং কবাখালী সপ্রাবিতে পুরস্কার বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এনায়েতপুরে মেয়েকে ইভটিজিং এর প্রতিবাদ করায় সাংবাদিককে মারধর, কিশোর গ্যাংয়ের লিডার সহ ৪ জন আটক বাঘাইহাট দারুল আরকাম ইবতেদায়ি মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের মাঝে পোশাক ও বার্ষিক ক্রীড়া পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত গুইমারাতে সেনাবাহিনীর মানবিক সহায়তা প্রদান কোস্ট গার্ড পশ্চিম জোনের বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ঔষধ বিতরণ আলীকদমে একুশে বই মেলায় বীর বাহাদুর এমপি রাঙামাটি শহরে ছিনতাইএ জড়িত তিন চাকমা যুবক আটক ভারতের রাজস্থানের আইসিইউতে ধর্ষণে শিকার তরুণী

নানিয়ারচরে ঝুঁকিপূর্ণ বেইলি সেতু, মেরামতের দাবি স্থানীয়দের!

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাঙ্গামাটি: / ১৮৯ জন পড়েছেন
প্রকাশিত : বুধবার, ২৫ আগস্ট, ২০২১

রাঙামাটির নানিয়ারচরে বেইলি সেতুর বেহাল দশা দেখা দিয়েছে। ফলে উপজেলার নানিয়ারচর সদর ইউনিয়ন ও সাবেক্ষ্যং ইউনিয়নে যাতায়াতে চরম ভোগান্তির স্বীকার হচ্ছে হাজারো পরিবার। ঝুঁকি নিয়েই পায়ে হেটে সেতু পার হচ্ছে স্থানীয়রা।

সরজমিনে ঘুরে দেখা যায়, নানিয়ারচর উপজেলা সদর ইউনিয়নের বড়পুল পাড়ার বেইলি সেতুটি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় এলাকার বাসিন্দারা পায়ে হেটে, মাথায় ও কাধে করে পন্য সামগ্রী পারাপার করছেন।

এ ব্যাপারে নানিয়ারচর উপজেলা চেয়ারম্যান প্রগতি চাকমা জানান, সাবেক্ষং এলাকার দীর্ঘদিনের এই সেতুটি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় স্থানীয়দের চলাচলে বিঘ্নতা ঘটছে। ব্যাক্তিগতভাবে আমি চাই কতৃপক্ষ বিষয়টি আমলে নিয়ে দ্রুত সেতুটি মেরামতের ব্যবস্থা গ্রহন করবে।

স্থানীয় মূদি ব্যবসায়ী নরেন্দ্র লাল চাকমা জানান, নানিয়ারচর সদর ও সাবেক্ষং ইউনিয়ন ২টির সংযোগ স্থাপন করেছে। গত ৪/৫ বছর সেতুটির বেহাল দশা হলেও বেশ কিছুদিন এই সেতু দিয়ে ভারী যান চলাচলে অযোগ্য হয়ে পড়ায় এলাকার বাসিন্দাদের ভোগান্তি চরমে পৌঁছেছে। সেতুর আগে সিএনজি রেখে কাধে করে মালামাল পার করা হচ্ছে।  কর্তৃপক্ষের কাছে এলাকাবাসীর দাবি সেতুটি দ্রুত মেরামতের ব্যবস্থা নেওয়া হোক।

স্থানীয় লিমা চাকমা জানান, পাহাড়ি ঢলে সেতুটি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। প্রবল বৃষ্টি হলে সেতুটি দিয়ে চলাচল করা যায়না। অনেক স্কুল পড়ুয়া শিশুরা এই ঝুঁকিপূর্ণ সেতু পার হয়ে স্কুলে যায়। এনিয়ে আমরা অভিভাবকরা অনেক চিন্তাই থাকি।

স্থানীয় পুলিন চাকমা জানান, ৯০ এর দশকে স্থাপিত হওয়া এই সেতুটি দীর্ঘদিন যাবৎ ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। পুরাতন এই সেতুটি এখন পর্যন্ত কেউ মেরামতের উদ্যোগ নেয়নি। সেতুটি মেরামত হলে এই পাড়ার ২শত পরিবার ও আশপাশের ৮-১০টি গ্রামের মানুষ উপকৃত হবে।

নানিয়ারচর সদর ইউনিয়নের ৪নং ইউপি সদস্য বিমল চাকমা জানান, সড়ক ও সেতুর বেহাল দশা। যান চলাচলে স্বচ্ছলতা এলে এই এলাকার জনগণ সরকারের উন্নয়নের সুফল ভোগ করবে।

এই বিষয়ে জানতে উপজেলা প্রকৌশলী রনি সাহা জানান, নানিয়ারচরের সাবেক্ষং এলাকায় উপজেলা এলজিইডি কর্তৃক কোন বেইলি সেতু করা হয়নি। খোঁজ নিয়ে দেখতে হবে এটা কি উপজেলা পরিষদ, গণপূর্ত বিভাগ, উন্নয়ণ বোর্ড নাকি সড়ক ও জনপদ বিভাগ এই সেতুটি নির্মাণ করেছে।

এদিকে সাবেক্ষং এর সাথে বড়পুল পাড়ার অপর এক যোগাযোগের মাধ্যম স্থানীয়দের তৈরী বাঁশের সাকো। এই সাঁকো দিয়ে প্রতিদিন ২শতাধিক পরিবার যাতায়াত করে। স্থানীয়দের দাবি সাঁকোটির জায়গায় একটি সেতু নির্মাণ হলে দুঃখ ঘুচবে স্থানীয়দের।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ