• মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ০৫:২৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম
কাপ্তাই ইফা’তে বিদায় -বরণ সংবর্ধনা অনুুষ্ঠিত  বিলাইছড়িতে বর্ণিল আয়োজনে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত ফকিরহাটে বাসের সাথে মটরসাইকেলের সংঘর্ষ, শিশুসহ নিহত-২  আওয়ামী লীগের ৭৫ তম জয়ন্তি উদযাপন উপলক্ষে কাপ্তাইয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত খাগড়াছড়িতে পার্বত্য চট্টগ্রাম এলাকায় আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে ইক্ষু, সাথী ফসল ও গুড় উৎপাদন শীর্ষক কর্মশালা খাগড়াছড়িতে পুলিশ নারী কল্যাণ সমিতি (পুনাক) বিক্রয় কেন্দ্রের শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠিত খাগড়াছড়িতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত লামা হাসপাতালে এমএসআর মালামাল সরবরাহে ব্যাপক অনিয়ম রাজস্থলীতে আওয়ামী লীগের ৭৫ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত আলীকদম মারাইংতং পাহাড়ে বেড়াতে এসে মেডিকেল ছাত্রের মৃত্যু পানছড়িতে মানবসেবা ও শিক্ষা কল্যাণ ফাউন্ডেশন এর দ্বিতীয় তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ও কৃতি শিক্ষার্থী ২০২৪ অনুষ্ঠিত মেহেদীর রং না মুছতেই বাবার বাড়িতে মেয়ের আত্মহত্যা 

বান্দরবানের তিনটি উপজেলায় সব ধরনের ব্যাংকিং কার্যক্রম বন্ধ, গ্রাহকদের দুর্ভোগ চরমে

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, ব্যুরো প্রধান বান্দরবান: / ৮২ জন পড়েছেন
প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ৪ এপ্রিল, ২০২৪

 

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, ব্যুরো প্রধান, বান্দরবান

সন্ত্রাসী হামলার আশঙ্কায় বান্দরবানের রুমা, রোয়াংছড়ি ও থানচি উপজেলায় ব্যাংকের কার্যক্রম বন্ধ রাখা হয়েছে। বন্ধ রয়েছে কৃষি ও সোনালী ব্যাংক। সেই সাথে জেলা সদরের প্রতিটি ব্যাংক এবং এটিএম বুথে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।

নিরাপত্তার কারণে এ তিনটি উপজেলার ব্যাংকগুলোর ১৫ জন কর্মকর্তা কর্মচারীদের এবং ভল্টে থাকা নগদ টাকা জেলা সদরে নিয়ে আসা হয়েছে। এদিকে ব্যাংকগুলোর কার্যক্রম বন্ধ থাকায় ঈদের এই সময়ে গ্রাহকদের দুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করেছে।

তবে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন বন্ধ থাকা তিনটি উপজেলার ব্যাংকগুলোর গ্রাহকরা জেলা সদরের সোনালী ব্যাংকে এসে লেনদেন করতে পারবে। এছাড়া লামা আলীকদম ও নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় স্বাভাবিক নিয়মে ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালিত হবে। এদিকে ঘটনার তিনদিন পরেও খোঁজ মেলেনি রুমা উপজেলার সোনালী ব্যাংকের অপহৃত ম্যানেজার নিজাম উদ্দিনের। তাকে উদ্ধারে নিরাপত্তা বাহিনী যৌথ অভিযান পরিচালনা করছে।

এছাড়া বান্দরবানের রুমা রোয়াংছড়ি ও থানচি উপজেলায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। সেখানে সেনাবাহিনী বিজিবি ও পুলিশ টহল দিচ্ছে। জেলা সদর থেকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে এপিবিএন সদস্যদের। রুমা ও থানচি উপজেলায় পুলিশ ও নিরাপত্তা বাহিনীর উর্দ্ধতন কর্মকর্তা পরিদর্শন করছেন। গত মঙ্গলবার রাতে কুকিচির ন্যাশনাল ফ্রন্ট কেএনএফ বান্দরবানের রুমা উপজেলার সোনালী ব্যাংকে থানা দিয়ে পুলিশ এবং আনসার বাহিনীর ১৪ টি অস্ত্র ও গোলাবারুদ লুট করে নিয়ে যায়। এছাড়া বুধবার সামসি উপজেলার কৃষি ও সোনালী ব্যাংকে পুনরায় হামলা চালিয়ে প্রায় ১৮ লক্ষ টাকা লুট করে নিয়ে যায়। সন্ত্রাসীরা অপহরণ করে নিয়ে যায় রুমা উপজেলার সোনালী ব্যাংকের ম্যানেজার মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিনকে।

এ ঘটনার পর সেখানে এখন থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। বান্দরবান সোনালী ব্যাংকের ডিজিএম ইনচার্জ মোহাম্মদ ওসমান গণি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে তিনটি উপজেলায় আগের মত ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ