• বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ০৫:২০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
পানছড়িতে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী হয়েছেন যারা রাজস্থলী উপজেলা নির্বাচনঃ চেয়ারম্যান পদে বিপুল ভোটে জয়ী উবাচ মারমা লামা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী হলেন যারা কাপ্তাই উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান নাছির উদ্দীন, ভাইস চেয়ারম্যান সুইপ্রু মারমা   চোখের জলে অবসরে গেলেন শিক্ষক রবি মোহন চাকমা মাটিরাঙ্গায় বিষপানে মোটরসাইকেল চালকের মৃত্যু কাপ্তাই জাতীয় উদ্যানে ৮ ফুট লম্বা অজগর সাপ অবমুক্ত  রামগড়ে ইয়াবা ও গাঁজাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক কাপ্তাইয়ে ষাটোর্ধ্ব অসুস্থ পিতা পুত্রের কোলে চড়ে ভোট দিতে  রাজস্থলী উপজেলায় সুষ্ঠুভাবে ভোট গ্রহণ চলছে   কাপ্তাইয়ে ভোট কেন্দ্র পরিদর্শনে রাঙামাটি জেলা প্রশাসক অত্যন্ত সুন্দর ও সুষ্ঠু পরিবেশে ভোটগ্রহণ চলছে- রাঙামাটি জেলা প্রশাসক

রাঙামাটির ফুরমন পাহাড়ে পর্যটকদের কাছ থেকে মোবাইল ছিনতাই করেছে উপজাতি সন্ত্রাসীরা

মোঃ হাবীব আজম, ব্যুরো প্রধান, রাঙামাটি / ৬৩৯ জন পড়েছেন
প্রকাশিত : রবিবার, ১৪ জানুয়ারী, ২০২৪

মোঃ হাবীব আজম, ব্যুরো প্রধান, রাঙামাটিঃ

অদ্য (১৪ জানুয়ারি) রবিবার সকাল আনুমানিক সাতটায় রাঙামাটি সদর উপজেলার সাপছড়ি ইউনিয়নস্থ ফুরমোন পাহাড়ে মেঘের অসাধারণ প্রকৃতি দেখতে ঘুরতে আসা পর্যটকের কাছ থেকে অস্ত্র ঠেকিয়ে মোবাইল ছিনতাই করে নিয়ে যায় ও মারধর করে উপজাতি সন্ত্রাসীরা

ফুরমন পাহাড়ে, নোয়াখালী জেলা হতে ৫ জন, রাঙামাটি সদরের ছয় জন ও রাউজান হতে তিন জন, চট্টগ্রাম জেলার রাঙ্গুনিয়া উপজেলা হতে দুই জন সহ ৩ টি গ্রুপে মোট ১৬ জন পর্যটক (শিক্ষার্থীসহ) ঘুরতে আসেন। তাদের মধ্যে প্রথম গ্রুপ ফুরমোন পাহাড়ের হেলিপ্যাড সহ অন্যান্য জায়গায় ঘুরাফেরা শেষ করে নামার সময় ও অন্য ২ গ্রুপ ঘুরতে উঠার সময় ফুরমোন পাহাড়ের বটগাছের কাছে পৌছলে তিন জন অস্ত্রধারী উপজাতি সশস্ত্র সন্ত্রাসী তাদের আটক করে ও ভয় দেখিয়ে প্রত্যকের কাছে থাকা মোট ১৬ টি মোবাইল ফোন নিয়ে যায়। ভিকটিম পর্যটকদের ভাষ্যমতে অস্ত্রধারী উপজাতি ১ জনের নিকট এসএমজি, ১ জনের নিকট শর্টগান ছিলো বলে জানা যায়। ফুরমন পাহাড় থেকে দ্রুত পর্যটকেরা পালিয়ে এসে জান মাল রক্ষার্থে সেনাবাহিনীর সহযোগিতা জন্য মানিকছড়ি সেনা ক্যাম্পে আসেন।

এসময় পর্যটকদের সাথে কথা বলে জানা যায় পরবর্তীতে তাদের আর ফুরমোন পাহাড়ে উঠতে নিষেধ করে দিয়েছেন উপজাতি অস্ত্রধারী যুবকরা। আর তারসাথে বলেছে তারা ফুরমোন পাহাড়কে কোন পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে চায় না, পার্বত্য চট্টগ্রামে কোন পর্যটন কেন্দ্র বা স্পট করতে দিবে না তারা।

এসময় স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায় অস্ত্র ধারী উপজাতি যুবকরা ইউপিডিএফ প্রসিত গ্রুপের সদস্য। পর্যটকরা হঠাৎ অস্ত্রধারীদের মারধর ও মোবাইল ফোন ছিনতাইএর ঘটনায় ভয়ে হতভম্ব হয়ে যায়। এসময় সেনাবাহিনীর সদস্যরা পর্যটকদের আশ্বস্ত করেন কোন সন্ত্রাসী পার পাবে না, পরবর্তীতে উক্ত ঘটনাস্থলে নিরাপত্তা বাহিনী গিয়ে তল্লাশি চালান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ