শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ১০:৩৫ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ

হ্যাঁ, এলাকা আমার, খবর আমার, পত্রিকা আমার। সাফল্যের ২ বছর শেষে ৩ তম বছরে দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ। নতুন বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে সবচেয়ে বেশি স্থানীয় সংস্করন নিয়ে "দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ" বিশ্লেষন আমাদের, সিদ্ধান্ত আপনার। দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ পত্রিকায় শুন্য পদে সংবাদদাতা নিয়োগ চলছে। আপনার এলাকায় শুন্য পদ রয়েছে কিনা জানতে কল করুনঃ 01647627526 অথবা ইনবক্স করুন আমাদের পেইজে। ভিজিট করুনঃ parbattakantho.com দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ। সত্য প্রকাশে সাহসী যোদ্ধা আমরা নতুন বাংলাদেশ গড়বো

দীঘিনালায় হিন্দু ধর্মীয় শিক্ষায় আলো ছড়াচ্ছে; শ্রীকৃষ্ণ গীতা শিক্ষালয়

মোঃ মহাসিন মিয়া, নিজস্ব প্রতিনিধি (দীঘিনালা) 
  • প্রকাশিত : সোমবার, ৬ জুন, ২০২২
  • ১১৩ জন পড়েছেন

খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় হিন্দু ধর্মালম্বীদের নির্দিষ্ট কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান না থাকলেও শিশুদের ধর্মীয় শিক্ষায় উদ্ধুদ্ধ করতে এক ব্যক্তির উদ্যোগে এবং উপজেলার কয়েকজন শিক্ষানুরাগীদের সহযোগিতায় প্রতিষ্ঠিত “শ্রীকৃষ্ণ গীতা শিক্ষালয়” উপজেলার হিন্দু ধর্মালম্বীদের শিশুদের মাঝে ধর্মীয় শিক্ষায় আলো ছড়াচ্ছে।

দীঘিনালার শশ্বান পোষ্ট সংলগ্ন এলাকায় ২০২০ সালের ১ এপ্রিল নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যক্তির উদ্যোগে ও উপজেলার কয়েকজন শিক্ষানুরাগী ব্যক্তির সহযোগিতায় প্রতিষ্ঠিত হয় “শ্রীকৃষ্ণ গীতা শিক্ষালয়”। প্রথমে ৯৮ জন শিশু শিক্ষার্থী নিয়ে খোলা আকাশের নিচে পড়ানো হতো। পরবর্তীতে দীঘিনালা শীল কল্যান সমিতির খালি জায়গায় ঘর তোলার অনুমতি পেলে সকলের সহযোগিতায় একটি টিন সেট ঘর ও একটি ডিপ টিউবওয়েল স্থাপন করা হয়।

শিক্ষালয়ে কয়েজন শিক্ষক রুটিন অনুযায়ী সপ্তাহে একদিন সেচ্চায় ক্লাস নেন। বর্তমানে গীতা শিক্ষালয়ে সকল বয়সীদের পাঠদান করানো হয় এবং ধর্মীয় শিক্ষার পাশাপাশি প্রতি সপ্তাহে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার যাবতীয় শিক্ষা উপকরণ বিনামূল্যে দেয়া হয়। বর্তমানে সকল বয়সীসহ প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থী নিয়ে ধর্মীয় শিক্ষায় আলো ছড়াচ্ছে “শ্রীকৃষ্ণ গীতা শিক্ষালয়”। প্রতি বছর সকল জাতীয় উৎসব পালন সহ পুরস্কার বিতরণ ও বিভিন্ন কর্মসূচির আয়োজন করেন শিক্ষালয় পরিচালনাকারীরা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন শিক্ষানুরাগী ব্যক্তি শ্রীকৃষ্ণ গীতা শিক্ষালয় পরিচালনা করে আসছেন। তাঁরা জানান, শুধু হিন্দু ধর্মীয় শিক্ষাই নয় সকল ধর্মীয় শিক্ষার্থীদের যেন পাঠদান করানো যায় সে বিষয়েও ভাবছি আমরা। তাছাড়া আগামীর শিশুদের সুশিক্ষা ও ধর্মীয় জ্ঞান অর্জনের কথা চিন্তা করে শ্রীকৃষ্ণ গীতা শিক্ষালয়লের পাশাপাশি একটি অনাথ আশ্রম ও সনাতনী তৌদিক স্কুল করার জন্যও চেষ্টা করে যাচ্ছি আমরা।

এম/এস

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এই পোর্টালের কোনো খেলা বা ছবি ব্যাবহার দন্ডনীয় অপরাধ।
কারিগরি সহযোগিতায়: ইন্টাঃ আইটি বাজার
iitbazar.com