মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ০৭:০১ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ

হ্যাঁ, এলাকা আমার, খবর আমার, পত্রিকা আমার। সাফল্যের ২ বছর শেষে ৩ তম বছরে দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ। নতুন বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে সবচেয়ে বেশি স্থানীয় সংস্করন নিয়ে "দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ" বিশ্লেষন আমাদের, সিদ্ধান্ত আপনার। দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ পত্রিকায় শুন্য পদে সংবাদদাতা নিয়োগ চলছে। আপনার এলাকায় শুন্য পদ রয়েছে কিনা জানতে কল করুনঃ 01647627526 অথবা ইনবক্স করুন আমাদের পেইজে। ভিজিট করুনঃ parbattakantho.com দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ। সত্য প্রকাশে সাহসী যোদ্ধা আমরা নতুন বাংলাদেশ গড়বো

যে কারণে খাবেন মাছের ডিম

অনলাইন ডেস্ক:
  • প্রকাশিত : শনিবার, ১৪ মে, ২০২২
  • ৫৩ জন পড়েছেন

মাছ অন্তপ্রাণ বাঙালি। পাতে মাছ না থাকলে যেন খাবারের প্রতি মন বসতে চায় না ভোজনপ্রিয় বাঙালির। কিন্তু অনেকের মাছের ডিমের স্বাস্থ্য উপকারিতা সম্পর্কে জানা নেই। স্বাস্থ্য ও জীবনধারাবিষয়ক ওয়েবসাইট বোল্ডস্কাইয়ের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মাছের ডিম যা ক্যাভিয়ার (Caviar) বা রো (Roe) হিসেবে পরিচিত। এটি ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড সমৃদ্ধ, যা ফিশ অয়েল সাপ্লিমেন্ট হিসেবে আমাদের শরীরে কার্যকর ভূমিকা পালন করে। চিকিৎসকদের মতে, মাছের ডিমে এমন কিছু উপাদান রয়েছে, যা শরীরের বহু সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে। চলুন দেখে নেওয়া যাক মাছের ডিম খাওয়ার স্বাস্থ্য উপকারিতা—

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা শক্তিশালী করে: যে কোনো অসুখ থেকে বাঁচতে হলে আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা শক্তিশালী করা জরুরি। এতে যে কোনো ভাইরাস-ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে লড়াই করে টিকে থাকা সহজ হয়। আর এই কাজে আপনাকে সাহায্য করবে মাছের ডিম। নিয়মিত মাছের ডিম খেলে বাড়বে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা।

চোখ ভালো রাখে: বর্তমানে দৃষ্টিশক্তির সমস্যা ঘরে ঘরে। সে জন্য খুব কম বয়সে চোখে চশমা দরকার হয় অনেকের। এই সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে পারে মাছের ডিম। কারণ মাছের ডিমে থাকে পর্যাপ্ত ভিটামিন এ, এটি চোখ ভালো রাখতে কাজ করে। সেই সঙ্গে এতে থাকে ডিএইচএ ও ইপিএ যা শিশুর চোখের জ্যোতি বাড়ানো ও রেটিনাকে আরও বেশি কার্যকরী করে তুলতে সাহায্য করে।

মস্তিষ্কের স্বাস্থ্য ভালো রাখে: আমাদের মস্তিস্থের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে কাজ করে মাছের ডিম। গবেষকরা বলছেন, এতে থাকা এক ধরনের ফ্যাটি অ্যাসিড এই কাজে সাহায্য করে। মস্তিষ্ক ভালো রাখার পাশাপাশি রিউম্যাটয়েড আর্থ্রাইটিসের সমস্যা কমাতে কাজ করে মাছ ও মাছের ডিমে থাকা ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড।

রক্ত পরিষ্কার করে: রক্তের দূষিত পদার্থ দূর করতে কাজ করে মাছের ডিম। এতে থাকা স্বাস্থ্যকর উপাদান রক্ত পরিষ্কার করে ও হিমোগ্লোবিন বাড়ায়। যে কারণে কমে অ্যানিমিয়ার ভয়। রক্ত পরিষ্কার রাখতে নিয়মিত মাছের ডিম খাওয়ার অভ্যাস করতে পারেন।

হৃদরোগে উপকারী: হৃদরোগ প্রতিরোধে কাজ করে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড এবং ভিটামিন ডি। এই দুই উপাদান রয়েছে মাছের ডিমে। তাই হৃদরোগীদের জন্য মাছের ডিম বেশ উপকারী। নিয়মিত মাছের ডিম খেলে তা হৃদরোগ থেকে দূরে থাকতে সাহায্য করে।

দাঁত ও হাড় ভালো রাখে: আমাদের দাঁত ও হাড় ভালো রাখার জন্য অন্যতম কার্যকরী উপাদান হলো ভিটামিন ডি। মাছের ডিমে পাওয়া যাবে এই ভিটামিন। ফলে নিয়মিত মাছের ডিম খেলে তা দাঁত ভালো রাখে ও হাড় শক্ত করে।

উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি কমায়: সুস্থ থাকার জন্য রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখা জরুরি। আপনি যদি মাছের ডিম খান তবে তা এই কাজে আপনাকে সাহায্য করতে পারে। মাছের ডিমে থাকা ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড শরীরের ভেতরে রক্ত জমাট বাঁধতে বাধা দেয় এবং সেই সঙ্গে প্রদাহও কমিয়ে দেয়। ফলে কমে উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকি।
এম/এস

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এই পোর্টালের কোনো খেলা বা ছবি ব্যাবহার দন্ডনীয় অপরাধ।
কারিগরি সহযোগিতায়: ইন্টাঃ আইটি বাজার
iitbazar.com