বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১০:০৪ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ

হ্যাঁ, এলাকা আমার, খবর আমার, পত্রিকা আমার। সাফল্যের ২ বছর শেষে ৩ তম বছরে দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ। নতুন বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে সবচেয়ে বেশি স্থানীয় সংস্করন নিয়ে "দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ" বিশ্লেষন আমাদের, সিদ্ধান্ত আপনার। দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ পত্রিকায় শুন্য পদে সংবাদদাতা নিয়োগ চলছে। আপনার এলাকায় শুন্য পদ রয়েছে কিনা জানতে কল করুনঃ 01647627526 অথবা ইনবক্স করুন আমাদের পেইজে। ভিজিট করুনঃ parbattakantho.com দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ। সত্য প্রকাশে সাহসী যোদ্ধা আমরা নতুন বাংলাদেশ গড়বো

১০ গ্রেডের দাবীতে লামায় প্রাথমিক সহকারী শিক্ষকদের নানা কর্মসূচি

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, নিজস্ব সংবাদদাতা, লামা
  • প্রকাশিত : শনিবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী, ২০২২
  • ৫৫ জন পড়েছেন

লামা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সামনে ব্যানার সহ সহকারী শিক্ষকদের অবস্থান।

১০ম গ্রেড বাস্তবায়নে ব্যানার, পেস্টুন লাগানো ও অবস্থান কর্মসূচী পালন করেছে প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক সমন্বয় পরিষদ লামা উপজেলা শাখা। শুক্রবার (২৫ ফেব্রæয়ারী) দিনব্যাপী প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক ১০ম গ্রেড বাস্তবায়ন সমন্বয় পরিষদের নেতৃবৃন্দরা উপজেলার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থান-দপ্তরে এইসব ব্যানার, পেস্টুন লাগায়। এদিকে গত মঙ্গলবার (২২ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে লামা উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের সামনে দাবী আাদয়ে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে সংগঠনটি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, সহকারী শিক্ষক সমন্বয় পরিষদের সদস্য আকরাম হোসেন জুয়েল, আলী হোসেন, জাহেদুল ইসলাম খোকা, আবু বক্কর, নাজমুল আলম শামীম, আজগর হোসেন, নাছির উদ্দিন, মিলন বড়ুয়া, শুভংকর বড়ুয়া, তৌহিদুল ইসলাম, মোঃ মিল্লাত, মোঃ ইয়াছিন, চমং মার্মা, মোঃ হাবিব, রাহুল ত্রিপুরা, শামসুন নাহার, আমির হোসেন ও উজ্জ্বল সহ প্রমূখ।

সহকারী শিক্ষক আজগর হোসেন বলেন, শুক্রবার আমরা বিভিন্ন দাবী উল্লেখ করে লামা উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস, উপজেলা পরিষদ, বাসস্টেশন, বিভিন্ন বিদ্যালয়ে ও উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের সামনে ব্যানার লাগানো হয়।

এসময় সহকারী শিক্ষক আকরাম হোসেন জুয়েল বলেন, শিক্ষকরা জাতি গড়ার কারিগর, অথচ আমরা অবহেলিত। আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে সদয় অনুগ্রহ কামনা করছি, ন্যায্যতা ও যোগ্যতার ভিত্তিতে প্রাথমিক সহকারী শিক্ষকদের ১০ম গ্রেড বাস্তবায়ন করা হোক।

সহকারী শিক্ষক জাহেদুল ইসলাম খোকা বলেন, সহকারী শিক্ষকদের বেতন হয় ১৩তম গ্রেডে। মূল বেতন, বাসা ভাড়া, চিকিৎসা ভাতা, টিফিন ভাতা সহ আমরা মোট বেতন পাই ১৭ হাজার ৬৫০ টাকা। যা দিয়ে বর্তমান উর্দ্ধমুখি দ্রব্যমূল্যের বাজারে কোনমতে চলা যায়না। ঋণের বোঝা মাথায় নিয়ে হতাশা ও মনোকষ্টে আমরা পাঠদান সহ জীবিকা নির্বাহ করি। আমাদের দাবী পূরণ করতে সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এই পোর্টালের কোনো খেলা বা ছবি ব্যাবহার দন্ডনীয় অপরাধ।
কারিগরি সহযোগিতায়: ইন্টাঃ আইটি বাজার
iitbazar.com