বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:৫৮ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ

হ্যাঁ, এলাকা আমার, খবর আমার, পত্রিকা আমার। সাফল্যের ২ বছর শেষে ৩ তম বছরে দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ। নতুন বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে সবচেয়ে বেশি স্থানীয় সংস্করন নিয়ে "দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ" বিশ্লেষন আমাদের, সিদ্ধান্ত আপনার। দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ পত্রিকায় শুন্য পদে সংবাদদাতা নিয়োগ চলছে। আপনার এলাকায় শুন্য পদ রয়েছে কিনা জানতে কল করুনঃ 01647627526 অথবা ইনবক্স করুন আমাদের পেইজে। ভিজিট করুনঃ parbattakantho.com দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ। সত্য প্রকাশে সাহসী যোদ্ধা আমরা নতুন বাংলাদেশ গড়বো

নওগাঁয় নারীর ফাঁদে পড়ে কারাগারে ছেলে, বাবার সংবাদ সম্মেলন

আপেল মাহমুদ:
  • প্রকাশিত : সোমবার, ৮ নভেম্বর, ২০২১
  • ১৩৯ জন পড়েছেন

নওগাঁ মান্দায় ছেলের বিরুদ্ধে হয়রানি মূলক মিথ্যা মামলা ও মিথ্যা তথ্য দিয়ে সংবাদ প্রকাশের প্রতিবাদে ভুক্তভোগীর বাবা সংবাদ সম্মেলন করেছেন। সোমবার সকালে ভুক্তভোগী আরিফ হোসেনের বাবা আব্দুল হাকিমসহ কয়েকজন এসে মান্দা উপজেলা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন। ভুক্তভোগী ছেলের বাবা আব্দুল হাকিম কুসুম্বা ইউপির আরজি জিনারপুর গ্রামের মৃত ওমর আলীর ছেলে। ছেলের বাবা সংবাদ সম্মেলনে জানান, উপজেলার হাজী গোবিন্দপুর গ্রামের মৃত আবদুল গনির স্ত্রী (দুই সন্তানের জননী) আশা আক্তার গত ৬ জুন ২১ইং তারিখে ২৪৭ খতিয়ানের হাজী গোবিন্দপুর মৌজার ১৮১ হাল দাগের বসত ভিটার ৪ শতাংশ জমি বিক্রি করার জন্য পার্শ্ববর্তী এলাকার আরজি জিনারপুর গ্রামের আব্দুল হাকিমের ছেলে আরিফ হোসেন সরকারের নিকট থেকে জমি বিক্রিয়ের নামে ২২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা গ্রহণ করেন। উক্ত টাকা গ্রহণের পর করোনাকালীন সময় হাওয়ায় সাব-রেজিস্ট্রি অফিস বন্ধ হয়ে যাওয়ার কারণে, জমি রেজিস্ট্রি করা কিছুটা বিলম্ব হয়ে যায়। পরবর্তী সময়ে অফিস খুললে জমি রেজিস্ট্রি দিতে আশা আক্তার তালবাহানা শুরু করেন। পরবর্তীতে জমি রেজিস্ট্রি দিবেনা বলে তার স্বাক্ষরিত যমুনা ব্যাংকের একটি চেক দিয়ে ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন করে নিতে বলেন। পরে চেক নিয়ে ব্যাংকে টাকা উত্তোলন করতে গেলে উক্ত হিসাব নাম্বারে টাকা নেই বলে ব্যাংক কর্মকর্তারা জানান। এবিষয়ে আশা আক্তারেকে জানালে তখন বুদ্ধি খাটিয়ে নিজেকে বাঁচাতে গত ১৯ জুলাই আরিফ হোসেনের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন । তখন আরিফ হোসেন নিরুপায় হয়ে গত ২৯ জুলাই ২১ইং তারিখে আশা আক্তারের দেওয়া স্বাক্ষরিত চেকটি ডিজঅনার করেন এবং তাকে গত ১৯ আগস্ট লিগ্যাল নোটিশ প্রেরণের পর ২৮ সেপ্টেম্বর আশার আক্তারের বিরুদ্ধে আরিফ হোসেন বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। তবে আশা আক্তারের করা ধর্ষণ মামলায় ভুক্তভোগী আরিফ হোসেন এখন জেল হাজতে রয়েছেন।

ভুক্তভোগী আরিফ হোসেনের বাবা আব্দুল হাকিম আরোও বলেন,এই মেয়ে অনেক মানুষকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে জীবন নষ্ট করেছে । এভাবে প্রায়ই মানুষকে হয়রানি করে টাকা আদায় করে নেন। একই কায়দায় উপজেলার মান্দা সদর ইউপির বিজয়পুর গ্রামের রুস্তম আলী (টুটুল)কে প্রেমের ফাঁদে ফেলে আশা আক্তার গত ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৬ ইং তারিখে তার বসত ভিটার পৌনে ৩শতক জমি রেজিস্ট্রি করে নেন। এই দুই সন্তানের জননী আশা আক্তার হয়রানি মূলক মিথ্যা মামলা ও মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করে আমাদেরকে হেনেস্থা করার চেষ্টা চালাচ্ছে। এই প্রতারক মহিলার প্রতারণা ও হয়রানিমূলক মামলা থেকে পরিত্রাণ পেতে প্রশাসনের সুদৃষ্টি আকর্ষণসহ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের দাবি জানিয়েছেন তিনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এই পোর্টালের কোনো খেলা বা ছবি ব্যাবহার দন্ডনীয় অপরাধ।
কারিগরি সহযোগিতায়: ইন্টাঃ আইটি বাজার
iitbazar.com