শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ০৫:৪৫ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ

হ্যাঁ, এলাকা আমার, খবর আমার, পত্রিকা আমার। সাফল্যের ২ বছর শেষে ৩ তম বছরে দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ। নতুন বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে সবচেয়ে বেশি স্থানীয় সংস্করন নিয়ে "দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ" বিশ্লেষন আমাদের, সিদ্ধান্ত আপনার। দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ পত্রিকায় শুন্য পদে সংবাদদাতা নিয়োগ চলছে। আপনার এলাকায় শুন্য পদ রয়েছে কিনা জানতে কল করুনঃ 01647627526 অথবা ইনবক্স করুন আমাদের পেইজে। ভিজিট করুনঃ parbattakantho.com দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ। সত্য প্রকাশে সাহসী যোদ্ধা আমরা নতুন বাংলাদেশ গড়বো

ফরিদপুরের সালথা ও নগরকান্দা উপজেলার ১৭ ইউনিয়নে বইছে নির্বাচনী উৎতাপ

কামরুল হাসান জুয়েল, ফরিদপুর থেকে:
  • প্রকাশিত : রবিবার, ৭ নভেম্বর, ২০২১
  • ৮২ জন পড়েছেন

প্রার্থীদের শেষ মূহুর্তের প্রচার প্রচারনায় জমে উঠছে নির্বাচনী এলাকার পরিবেশ। ভোটের দিন ঘনিয়ে আসায় সকাল থেকে মধ্যে রাত অবধি চলছে জোর প্রচার প্রচারনা। প্রার্থী ও ভোটারদের মধ্যে চলছে নানা হিসাব নিকাশ। প্রার্থীরা তাদের নিজেদের বাক্সে ভোট টানতে নানা কৌশলে চালিয়ে যাচ্ছেন প্রচারনার শেষ সময়ে। এলাকার উন্নয়নসহ নানা প্রতিশ্রুতি দিয়ে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ছুটে যাচ্ছেন তারা। আর ভোটারেরা প্রার্থীদের কাছ থেকে সুযোগ বুঝে আদায় করে নিচ্ছেন উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি। নির্বাচনের দিন এগিয়ে আসায় প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী ও তাদের সমর্থকদের মাঝে বাড়ছে উত্তেজনা। ইতোমধ্যেই বেশ কয়েকটি ইউনিয়নে প্রতিদ্ব›িদ্ব প্রার্থীরা একে অপরের বিরুদ্ধে আচরনবিধি ভঙ্গ, অফিস ভাংচুর ও হামলার অভিযোগ করেছেন। এ নিয়ে ভোটারদের মাঝে কিছুটা হলেও আতংক বিরাজ করছে। এলাকার উন্নয়নসহ যারা সঠিক নেতৃত্ব দিতে পারবে এমন প্রার্থীদের ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করার কথা জানান ভোটারেরা। তাছাড়া নির্বিঘ্নে যাতে ভোটারেরা ভোট দিতে পারেন সেদিকে প্রশাসনের নজর রাখার কথা জানান তারা।
এদিকে দুটি উপজেলার প্রায় সবখানেই রয়েছে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী। বিএনপি ভোট যুদ্ধে না আসায় ভোটের মাঠে এই বিদ্রোহী প্রার্থীরা চমক দেখাবেন বলে মনে করছেন অনেকে।
দুপুর ২টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত প্রার্থীদের প্রচারনার জন্য চলছে মাইকিং। চায়ের দোকানে চলছে ভোটারদের আড্ডা। চারিদিকে বইছে নির্বাচনী হাওয়া। প্রার্থীদের পদচারনা এখন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। এরমধ্যে কোথাও কোথাও ঘটেছে হামলা-পাল্টা হামলার ঘটনা। মামলা, অভিযোগ ও জিডি হয়েছে বেশ কিছু ঘটনা নিয়ে।
এমন উৎতপ্ত পরিবেশে প্রশাসন নির্বাচনকে সুষ্ঠু সুন্দর ও নিরপেক্ষ করতে প্রয়োজনীয় সকল ব্যবস্থা নিয়েছেন বলে প্রার্থীদেরকে আশ^স্ত করেছেন। সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে যা যা করা দরকার, তার সব ব্যবস্থাই গ্রহণ করা হবে নগরকান্দায় বলে ঘোষনা দিয়েছেন ফরিদপুরের পুলিশ সুপার মোঃ আলিমুজ্জামান।
সরোজমিনে রবিবার সালথা উপজেলার গট্রি ও আটঘর ইউনিয়নের গিয়ে দেখা যায়, সকাল থেকে চেয়ারম্যান প্রার্থীরা ভোটের মাঠে ঘুরে ফিরছেন। এসময় কথা হয় গট্রি ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী প্রার্থী খন্দকার রেজাউর রহমান চয়ন মিয়ার সাথে তিনি বলেন, এবারের নির্বাচনে আমি আশা করছি বিপুল ভোটে আমি যদি বিজয়ী হতে পারি তাহলে এই ইউনিয়নকে একটি মডেল ইউনিয়নে পরিনত করবো। তবে প্রশাসনের কাছে অনুরোধ করবো নির্বাচনটি যেন সুষ্ঠ ভাবে অনুষ্ঠিত করা হয়।
একই ভাবে আটঘর ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী শাহিনুর রহমান বলেন, ভোট যদি সুষ্ঠ হয় তাহলে আমি নির্বাচনে বিপুল ভোটে বিজয়ী হবো। ভোট সুষ্ঠ হওয়া নিয়ে আমাদের ভিতর সংশয় রয়েছে। তবে প্রশাসনের বর্তমান অবস্থায় আমার মনে হচ্ছে ভোট সুষ্ঠ হবে।
আটঘর ইউনিয়নের নৌকা প্রতিকের চেয়ারম্যান প্রার্থী সোহাগ খান জানান, নৌকা স্বাধীনতার প্রতীক, নৌকা বঙ্গবন্ধুর প্রতীক, নৌকা জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতীক, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও জাতীয় সংসদের মাননীয় সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী এমপি ও তার রাজনৈতিক প্রতিনিধি শাহদাব আকবর লাবু চৌধুরী প্রতীক। আটঘর ইউনিয়নের অসমাপ্ত কাজ সম্পূন্ন করতে এবং এই উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যহত রাখতে আসন্ন ইউপি নির্বাচনে আটঘর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করে এলাকাবাসীর সেবা করার সুযোগ দিবেন।
এবারের নির্বাচনে সালথা ও নগরকান্দার ১৭টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৮৯ জন প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। সালথার আট ইউপিতে ১লাখ ২৯ হাজার ৬৭৫জন ও নগরকান্দার নয় ইউপিতে ১ লাখ ৪৫ হাজার ২শ ৩২ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এই পোর্টালের কোনো খেলা বা ছবি ব্যাবহার দন্ডনীয় অপরাধ।
কারিগরি সহযোগিতায়: ইন্টাঃ আইটি বাজার
iitbazar.com