রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩, ০৯:২৮ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ

হ্যাঁ, এলাকা আমার, খবর আমার, পত্রিকা আমার। সাফল্যের ২ বছর শেষে ৩ তম বছরে দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ। নতুন বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে সবচেয়ে বেশি স্থানীয় সংস্করন নিয়ে "দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ" বিশ্লেষন আমাদের, সিদ্ধান্ত আপনার। দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ পত্রিকায় শুন্য পদে সংবাদদাতা নিয়োগ চলছে। আপনার এলাকায় শুন্য পদ রয়েছে কিনা জানতে কল করুনঃ 01647627526 অথবা ইনবক্স করুন আমাদের পেইজে। ভিজিট করুনঃ parbattakantho.com দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ। সত্য প্রকাশে সাহসী যোদ্ধা আমরা নতুন বাংলাদেশ গড়বো

মহালছড়িতে ভুমি বিরোধ নিরসনে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ পাহাড়ের সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন

রিপন ওঝা,নিজস্ব প্রতিনিধি:
  • প্রকাশিত : রবিবার, ১০ অক্টোবর, ২০২১
  • ৪৩০ জন পড়েছেন

মহালছড়ি উপজেলার মাইসছড়ি ইউনিয়ন বাজারে বিশাল বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।

উক্ত মানববন্ধনে বক্তাগণ বলেন এই এলাকায় ভুমি বিরোধের জটিলতা নিয়ে পাহাড়ি বাঙালি দীর্ঘদিনের সমস্যা। বাঙালিরা অভিযোগ করেন, পুনর্বাসিত বাঙালিদেরকে সরকার হতে দেয়া কবুলিয়তের জায়গায় বসতঘর নির্মাণ করতে গেলে ইউপিডিএফ সন্ত্রসীরা সাধারণ পাহাড়িদের লেলিয়ে দিয়ে ঘর নির্মানে বাঁধা দেয় এবং নির্মানাধীন বসতঘর রাতের আধাঁরে ভেঙে দেয় আর জীবন নাশের হুমকি দিয়ে থাকে। মানব বন্ধনে বক্তারা ভুমি বিরোধ নিরসনে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করে পাহাড়ে প্রত্যাহারকৃত সেনা ক্যাম্প পুনঃস্থাপন করার জোর দাবি জানান।

 

উক্ত মানববন্ধনে নাগরিক পরিষদের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার খাগড়াছড়ি পৌরসভার কাউন্সিলর মোঃ আব্দুল মজিদ, সাংগঠনিক সম্পাদক জনাব মোঃ শাহাদাৎ হোসেন, মোছাঃ উম্মে সালমা মউ, মোঃ শাহাদাৎ হোসেন কায়েস, মোঃ বেলাল হোসেন বক্তব্যে রাখেন।

এসময়ে আরো বক্তব্যে রাখেন মাইসছড়ি সচেতন নাগরিক সমাজ থেকে মোঃ আব্দুল আজিজ মেম্বার, মোঃ ফজলুল রহমান, মোঃ মহর আলী, মোঃ আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।

উল্লখ্যে যে, উক্ত এলাকাতে ৫ একর নামক স্থানে পূর্ব হতে ঘর রয়েছে, বর্তমানে পাকিজাছড়ি ও জয়সেনপাড়া, মুসলিমপাড়া, মানিকছড়ি এলাকার জনগণ নতুন করে তাদের নিজস্ব অর্থায়ন খরচ করে বিনিময়ে ঘর নির্মাণ করছে। নির্মাণরত ঘর ভেঙ্গে দেন, মোটরসাইকেল ভেঙ্গে দেন, গাছগাছালি কেটে দেন ক্ষতিগ্রস্থ গৃহের মালিকগণ ২০/০৯/২০২১ তারিখে মামলা করেন ৫/১০/২০২১ পুলিশ তদন্ত করার জন্য আসেন। ০৭/১০/২০২১ তারিখে ভয়ভীতি সঞ্চারের লক্ষ্যে গুচ্ছগ্রামের প্রতিটি এলাকায় ইউপিডিএফ ফাকা গুলি করে। সেই সাথে দেশপ্রেমিক সেনাবাহিনী ও স্থানীয় এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গের নাম জড়িয়ে ফেসবুকসহ বিভিন্ন প্রকার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিথ্যা বানোয়াট গুজব ছড়ানোর প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়েছে

তৎকালীন সরকার পার্বত্য চট্টগ্রামের বিভিন্ন এলাকায় লোকজন আনা হয়েছিল। সেই পরিপেক্ষিতে তৎকালীন সরকার কবুলয়িতের ৪/৫ একর জায়গা বুঝিয়ে দেয়া হয়। কিন্তু মাইসছড়িতে ৫ একর জায়গা নামক স্থানে বাঙালিদের নিজস্ব জায়গায় নির্মানাধীন কিছু বসতঘর রাতের আঁধারে ভেঙে দেওয়া হয়, প্রাণনাশের হুমকি দেয়া হয়।

আজ ১০অক্টোবর সকাল ১০.০০ ঘটিকায় পার্বত্য চট্রগ্রাম নাগরিক পরিষদ ও সচেতন নাগরিক সমাজের ব্যানারে নির্যাতিত বাঙ্গালীগণ পাহাড়ের সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এই পোর্টালের কোনো খেলা বা ছবি ব্যাবহার দন্ডনীয় অপরাধ।
কারিগরি সহযোগিতায়: ইন্টাঃ আইটি বাজার
iitbazar.com