রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:১৮ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ

হ্যাঁ, এলাকা আমার, খবর আমার, পত্রিকা আমার। সাফল্যের ২ বছর শেষে ৩ তম বছরে দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ। নতুন বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে সবচেয়ে বেশি স্থানীয় সংস্করন নিয়ে "দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ" বিশ্লেষন আমাদের, সিদ্ধান্ত আপনার। দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ পত্রিকায় শুন্য পদে সংবাদদাতা নিয়োগ চলছে। আপনার এলাকায় শুন্য পদ রয়েছে কিনা জানতে কল করুনঃ 01647627526 অথবা ইনবক্স করুন আমাদের পেইজে। ভিজিট করুনঃ parbattakantho.com দৈনিক পার্বত্য কন্ঠ। সত্য প্রকাশে সাহসী যোদ্ধা আমরা নতুন বাংলাদেশ গড়বো

মহেশখালীতে শিক্ষা প্রতিষ্টানে শিক্ষার্থীদের পদচারণায় উৎসবমুখর ক্যাম্পাস

হ্যাপী করিম (মহেশখালী) কক্সবাজার:
  • প্রকাশিত : রবিবার, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৭৫ জন পড়েছেন

করোনায় শিক্ষার্থীদের জীবন থেকে হারিয়ে গেছে ৫৪৪ দিন। দীর্ঘ সময় বন্ধ থাকার পর সারাদেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলেছে আজ। শিক্ষার্থীদের পদচারণায় প্রাণ ফিরে পেয়েছে মেহেরিয়াপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। অভিভাবক, শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মাঝে বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ।

রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) সকালে ছাত্রছাত্রীদের পদচারণায় উৎসবমুখর পরিবেশ সরেজমিনে মেহেরিয়াপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ঘুরে দেখা যায়, করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবিলায় শিক্ষার্থীদের তাপমাত্রা পরিমাপ’সহ সার্জিকাল মাস্ক বিতরণের পর বিদ্যালয়ে প্রথম দিনে সব শ্রেণিতে করোনায় সচেতনতা বিষয় ক্লাস নিয়েছে শিক্ষক।

উল্লেখ্য- প্রবেশ পথ’সহ বিভিন্ন জায়গায় হাত ধোয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। বিভিন্ন জায়গায় ঝুলতে দেখা যায় করোনা থেকে সুরক্ষায় সরকার নির্দেশিত স্বাস্থ্য সচেতনতামূলক নানা ফেস্টুন। শ্রেণিকক্ষে দূরত্ব বজায় রেখে করা হয়েছে শিক্ষার্থীদের আসন বিন্যাস। স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে সচেতনতা তৈরিতে কাজ করতে দেখা গেছে প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের।

মেহেরিয়াপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক দানু মিয়া বলেন,আমরা সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী স্কুল খুলেছি। আগে থেকেই আমাদের সকল প্রস্তুতি ছিল। আজ শিক্ষার্থীদের পদচারণায় স্কুলের প্রাণ ফিরেছে। শুরুতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শ্রেণিকক্ষে প্রবেশ করানো হয়েছে শিক্ষার্থীদের।

সহকারী শিক্ষকা শামীমা ইয়াছমিন জানান, সরকারী নিদর্শনার পর থেকে কয়েকদিন ধরে আমরা শ্রেণিকক্ষ ও স্কুল পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করতে ব্যস্ত সময় পার করেছি। আজ স্কুল খুলে দিয়েছে। আমাদের স্কুল প্রাণ ফিরে পেয়েছে। স্কুল বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীরা অলস সময় পার করেছিল। এখন আবার ব্যস্ততা বেড়েছে। খুব ভালো লাগছে

মহেশখালী উপজেলা শিক্ষা অফিসার ভবরঞ্জন দাস বলেন, মহেশখালী উপজেলার সকল স্কুল-কলেজ দেড় বছর পর খোলা হয়েছে। সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী স্কুল-কলেজ কর্তৃপক্ষকে সব ধরনের পদক্ষেপ বাস্তবায়নের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। সময়মতো তারা সেগুলো বাস্তবায়ন করেছে। আজ শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও শিক্ষকদের উপস্থিতিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। স্কুলগুলো উপজেলা নির্বাহী স্যারকে সঙ্গে নিয়ে পরিদর্শন করে দেখছি। এখন পর্যন্ত কোনো সমস্যা পাওয়া যায়নি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এই পোর্টালের কোনো খেলা বা ছবি ব্যাবহার দন্ডনীয় অপরাধ।
কারিগরি সহযোগিতায়: ইন্টাঃ আইটি বাজার
iitbazar.com