রবিবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২১, ০২:৩৫ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তি

দেশের অন্যতম জনপ্রিয় দৈনিক পার্বত্যকন্ঠ পত্রিকার প্রিন্ট ও অনলাইন ভার্সনের জন্য পার্বত্য চট্রগ্রাম সহ দেশের বেশ কিছু জেলা ও থানায় পেশাদার ও শিক্ষানবিশ সাংবাদিক নিয়োগ দেয়া হবে। এছাড়া বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজের শিক্ষার্থীদের শিক্ষানবিশ সাংবাদিক হিসেবে কাজ করার সুযোগ দেয়া হচ্ছে। বান্দরবান ও রাঙ্গামাটি জেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেয়া হবে। আবেদন পাঠাবার ঠিকানা : parbattakantho@gmail.com  বিস্তারিত জানতে কল করুন:  ০১৬৪৭৬২৯৫২৬

মাদারীপুরে জেলা প্রশাসকসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা খারিজ

আরিফুর রহমান মাদারীপুর
  • প্রকাশিত : সোমবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ১৫৬ জন পড়েছেন

আরিফুর রহমান , মাদারীপুরঃ

মাদারীপুরে জেলা প্রশাসক, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে আদালতে দায়েরকৃত ২ টি ফৌজদারী মামলায় কোন স্বাক্ষী, প্রমাণ না থাকায় রোববার বিকেলে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মোহাম্মদ হোসেন খারিজ করে দেন। আদালত সূত্রে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে।
আদালত সূত্রে জানা গেছে, মাদারীপুরের শিবচরে গত ২৮ আগস্ট অবৈধ ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন করা হলে জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুনের নেতৃত্বে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকসহ ৬ জনের একটি দল অভিযান চালিয়ে ড্রেজার মেশিন পুড়িয়ে দেয়। এরই প্রেক্ষিতে ক্ষতিগ্রস্ত দুই জন ঠিকাদার ব্যবসায়ী মাটি ভরাটের কাজে ব্যবহৃত চারটি ড্রেজার মেশিন আগুন দিয়ে পুড়িয়ে ফেলা ও আটটি অন্যান্য মেশিন পিটিয়ে ভাংচুর করে ক্ষতি সাধন করার অভিযোগ এনে ১লা সেপ্টেম্বর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের মামলা দায়ের করেন। দায়েরকৃত মামলা দুটির বাদী হচ্ছে শিবচর উপজেলার ডাইয়ারচর গ্রামের মনির সরদার এবং সাদুল্লাবেপারীকান্দি গ্রামের সরোয়ার বেপারী। ঐদিন শুনানী শেষে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্টেআদালতের বিচারক মোহাম্মদ হোসেন মামলা গ্রহণ করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) এর কাছে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আদেশ প্রদান করেন। পরবর্তীতে মামলার বাদী পক্ষ গত ৩ সেপ্টেম্বর তদন্তকারী সংস্থা পিবিআই এর পরিবর্তে অন্য কোন সংস্থা বা জুডিসিয়ারী তদন্তের জন্য আবদেন করেন। বিজ্ঞ আদালত রোববার বাদী পক্ষের সেই আবেদনের প্রেক্ষিতে জুডিসিয়াল তদন্তের দিন ধার্য করেন। রোববার বাদী পক্ষ আদালতে স্বাক্ষীসহ উপস্থিত হয়নি, ড্রেজার পোড়ানো সংক্রান্ত কোন ছবি, ভিডিও বা অন্য কোন প্রমানাদি দাখিল করতে পারে নাই। এছাড়া বাদী পক্ষ মামলাটি সামনের দিকে চালানোর জন্য আগ্রহী না থাকায় এবং মামলাটি প্রত্যাহারের জন্য আবেদন করায় বিজ্ঞ আদালতের বিচারক মোহাম্মদ হোসেন মামলার সার্বিক দিক বিবেচনা করে খারিজ করে দেন।
জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন বলেন,’ জেলার বিভিন্ন উপজেলায় যারা অবৈধ ভাবে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন করছে তাদের বিরুদ্ধে আমারা অভিযান পরিচালনা করছি। এই অভিযানের একটি অংশ হিসাবে আমরা শিবচরে একটি ২৮ আগস্ট একটি ড্রেজারের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়েছি সেই প্রেক্ষিত্রে আমাদের বিরুদ্ধে ১লা সেপ্টেম্বর আমাদের বিরুদ্ধে একটি মামলা হয়। যেহেতু মামলাটি বিধি মোতাবেক হয় না তাই বিজ্ঞ আদালত মামলা দুটি খারিজ করে দিয়েছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এই পোর্টালের কোনো খেলা বা ছবি ব্যাবহার দন্ডনীয় অপরাধ
কারিগরি সহযোগিতায়: ইন্টাঃ আইটি বাজার
iitbazar.com