• মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০৫:০৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
রামগড় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়ন পত্র জমা বাঙ্গালহালিয়া ধলিয়াপাড়া শিক্ষা ফাউন্ডেশনের উদ্যেগে,শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ কাপ্তাইয়ের  চিংম্রং এ  সাংগ্রাঁই জল উৎসবে মাতোয়ারা হাজার হাজার তরুণ তরুণী  লংগদুতে ৩৭ বিজিবি জোনের উদ্যোগে বিধবা ও অসহায় মহিলাকে বসত ঘর উপহার মানিকছড়িতে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ৯জনের মনোনয়ন পত্র দাখিল খাগড়াছড়িতে বর্ণিল আয়োজনে মঙ্গল শোভাযাত্রা মাটিরাঙ্গায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে বাংলা নববর্ষ উদযাপন ৫ দিনের ছুটি শেষে অফিস-আদালত খুলছে সোমবার  লামায় পুলিশ সদস্যকে কুপিয়ে আহত করল সাজা প্রাপ্ত আসামী বান্দরবানে আসামি ধরতে গিয়ে ছুরিকাঘাতে পুলিশ কর্মকর্তা আহত

বেতন ভাতার দাবিতে ​​​​​​​লাকসাম মডেল কলেজ শিক্ষক কর্মচারীদের মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলন

আরিফুর রহমান স্বপন, লাকসাম(কুমিল্লা) / ২৩২ জন পড়েছেন
প্রকাশিত : বুধবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২৩

আরিফুর রহমান স্বপন, লাকসাম (কুমিল্লা) প্রতিনিধি

কুমিল্লার লাকসাম মডেল কলেজের বিরুদ্ধে অপপ্রচার, শিক্ষক ও কর্মচারীদের হয়রানি বন্ধ, শিক্ষক কর্মচারীদের বেতন ভাতা প্রদান ও সুষ্ঠুভাবে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার দাবিতে ২৭ সেপ্টেম্বর (বুধবার) দুপুরে কলেজ মাঠে মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলন করেছে শিক্ষক, কর্মচারীরা। এতে একাত্ত্বতা প্রকাশ করেছেন শিক্ষার্থীরাও।

মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলনে কলেজের শিক্ষক কর্মচারীদের বিরুদ্ধে অপপ্রচার বেতন ভাতা বন্ধ ও তাদেরকে নানাভাবে হয়রানির বিষয় তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন, কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মঞ্জুরুল আলম লিটন।

এ সময় ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ বলেন, দীর্ঘদিন ধরে একটি কুচক্রীমহল কলেজের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অপপ্রচার চালিয়ে আসছে। এছাড়াও ওই কুচক্রীমহল কলেজের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মামলা মোকদ্দমা সৃষ্টি করায় ১৬ মাস ধরে কলেজের শিক্ষক কর্মচারীদের বেতন ভাতা বন্ধ রয়েছে। ফলে শিক্ষকরা মানবেতর জীবন যাপন করছেন এবং বেতন ভাতা না পেয়ে বিনা চিকিৎসায় এক কর্মচারী মারাও গেছেন। মানবিক দিক বিবেচনা করে শিক্ষক কর্মচারীদের বেতন ভাতা প্রদানের জন‍্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি দাবী জানান কলেজ অধ্যক্ষ। তিনি আরো বলেন, ১৯৯৪ সালে প্রতিষ্ঠার পর ২০০০ সালে কলেজটি এমপিওভুক্ত হয়। কিন্তু কলেজের শিক্ষক কর্মচারীদের হয়রানির উদ্দেশ্যে ২০০১ সালে কলেজের প্রতিষ্ঠাতা প্রফেসর বশির আহম্মেদের স্ত্রী খোদেজা বেগম লিনা বিভিন্ন অজুহাতে কলেজ সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করেন। এ পর্যন্ত প্রায় ২০টি মামলা হয়েছে। কিন্তু সবগুলো মামলার রায় কলেজের পক্ষে এসেছে।

অন্যদিকে, সম্প্রতি লাকসাম উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যানের মধ্যস্থতায় সমঝোতা বৈঠকে প্রতিষ্ঠাতার পরিবার কলেজে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিত করতে ভবিষ্যতে মামলা কিংবা অন্যভাবে হয়রানিমূলক পদক্ষেপ না নেয়ার অঙ্গীকার করলেও তা পরে আর কার্যকর হয়নি। যিনি কলেজটি প্রতিষ্ঠা করেছেন তার পরিবারের লোকজন কলেজের জায়গা বিক্রির পায়তারা করছেন এখন। ফলে বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে শিক্ষা বোর্ডের কতিপয় ব‍্যাক্তিদের যোগসাজসে আমাদের বেতন ভাতা বন্ধ রেখেছে। তারা এমপিওভুক্ত এই কলেজটিকে ব্রাড নামে স্বঘোষিত একটি এনজিওর মাধ‍্যমে পরিচালনা করে এটিকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিতে চাচ্ছে। কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ‍্যক্ষ মঞ্জুরুল আলম লিটন কলেজটিকে বাঁচিয়ে রাখতে এবং শিক্ষক কর্মচারীদের বেতন ভাতা অব‍্যাহত রাখতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহবান জানান।

মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলনে অন‍্যান‍্যদের মধ‍্যে উপস্থিত ছিলেন, কলেজের সহকারী অধ‍্যাপক সালমা জাহান চৌধুরী, মোঃ আবদুল আউয়াল সিদ্দিকী, মরিয়ম বেগম, সিনিয়র প্রভাষক ওমর খসরু, লিয়াকত আলী, মোহাম্মদ মাঈনুদ্দিন ভুঁইয়া, শরীর চর্চা শিক্ষক আবু বকর সিদ্দিক মজুমদার, প্রভাষক বাহারুল আলম, বি.এম আসফাকুজ্জামান, জাহাঙ্গীর আলম, গোলাম মোর্শেদ, মমতাজ বেগম, সফিকুর রহমানসহ শিক্ষক-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীরা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ