• বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ১১:৫৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে কাপ্তাইয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত দেশের মানুষের সুরক্ষায় সার্বজনীন পেনশন স্কিম চালু করেছে সরকার….নাজমুন আরা সুলতানা লামায় চাম্পাতলী বৌদ্ধ বিহারের চেরাং ঘর আগুনে পুড়ে গেছে রামগড়ে হত্যা মামলা আসামি ২৩ বছর পর গ্রেফতার মহেশখালী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ১৫ জনের মনোনয়ন পত্র দাখিল ৫ দিনের ছুটি শেষে আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম শুরু বেনাপোল বন্দরে যশোর শার্শার বেলতলা বাজারে গুটি আম বেচাকেনা শুরু রাঙ্গামাটির রাজস্থলীতে দুই ইউপি সদস্য ৯ দিন ধরে নিখোঁজ রামগড় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়ন পত্র জমা বাঙ্গালহালিয়া ধলিয়াপাড়া শিক্ষা ফাউন্ডেশনের উদ্যেগে,শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ

বান্দরবান স্টেডিয়ামে দর্শককে মুগ্ধ করল কোয়ান্টাম কসমো স্কুলের শিক্ষার্থীরা

মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, নিজস্ব সংবাদদাতা, লামা / ৩০৪ জন পড়েছেন
প্রকাশিত : শনিবার, ১১ জুন, ২০২২

বান্দরবান জেলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ‘বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট ২০২২’-এর সমাপনী অনুষ্ঠানে হাজারো দর্শকের সামনে মনোমুগ্ধকর ডিসপ্লে ও ব্যান্ডবাদনা প্রদর্শন করে কোয়ান্টাম কসমো স্কুলের শিক্ষার্থীরা। ১০ জুন বিকেলে বান্দরবানের জেলা প্রশাসক ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজির সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং, এমপি।

বর্তমানে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সার্বিক সহযোগিতায় এ জেলার ক্রীড়াঙ্গনকে সমৃদ্ধ করার লক্ষ্যে বান্দরবান পার্বত্য জেলা ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে গত ২০ মে থেকে বান্দরবান জেলা স্টেডিয়ামে এই টুর্নামেন্ট শুরু হয়, যার সমাপনী খেলা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান ১০ জুন অনুষ্ঠিত হলো। ফুটবল টুর্নামেন্টের এই বর্ণাঢ্য আয়োজনেকে স্মরণীয় করে রাখতে কোয়ান্টাম কসমো স্কুল ও কলেজের একটি সমবেত ডিসপ্লে প্রদর্শনের অনুরোধ জানান এই টুর্নামেন্টের আহ্বায়ক ও বান্দরবানের অতিরিক্ত জেলাপ্রশাসক সুরাইয়া আক্তার সুইটি।

নোঙ্গর তোলো তোলো সময় যে হলো হলো’ সংগীতের সাথে ডিসপ্লে প্রদর্শন করে কোয়ান্টাম কসমো স্কুল ও কলেজের প্রাথমিক বিভাগের ১৬৪ জন ক্ষুদে শিক্ষার্থী এবং হাই স্কুলের ৬৩ জন ব্যান্ডবাদনা প্রদর্শন করে। মাননীয় মন্ত্রী ও আগত দর্শকেরা কোয়ান্টাম কসমো স্কুল ও কলেজের এই প্রদর্শনী উপভোগ করেন ও প্রশংসা ব্যক্ত করেন।

২০০১ সালে মাত্র সাত জন ম্রো জাতিগোষ্ঠীর শিশু নিয়ে যাত্রা শুরু করে কোয়ান্টাম কসমো স্কুল ও কলেজ। ২০ বছরের পরিক্রমায় জাতি-ধর্ম নির্বিশেষে এখন এখানে আড়াই হাজারের বেশি শিক্ষার্থী। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের বঞ্চিত শিশু ও এতিমদের নিয়ে এই স্কুলের রয়েছে শিক্ষা ও ক্রীড়ায় দেশসেরা সাফল্য। ঢাকায় জাতীয় শিশু-কিশোর কুচকাওয়াজে তারা প্রথম হয়েছে ২০১৫ থেকে টানা পাঁচ বছর। বুয়েট, মেডিকেল ও পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার সৌভাগ্য অর্জন করেছে তারা।
এম/এস


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ