• মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:২৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম
মাদক থেকে দূরে রাখতে খেলাধুলার বিকল্প নেই- বীর বাহাদুর মানিকছড়ি ইংলিশ স্কুলে বার্ষিক ক্রীড়া ও পুরস্কার বিতরণ বেলকুচি থানায় পুলিশ সুপার কাপ ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্ট ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত চট্টগ্রাম ইপিজেড থানা দ্বি-বার্ষিক পরিদর্শনে (অতিরিক্ত আইজিপি) কৃষ্ণপদ রায় মহেশখালীতে বিসিএস সুপারিশপ্রাপ্ত ৭ ক্যাডার’কে শুভেচ্ছা জানালেন ইউএনও সোনাগাজীতে ইউনাইটেড প্রিমিয়ার লীগের ফাইনাল খেলা ও পুরস্কার বিতরণ ঢাবিতে ভর্তিচ্ছুকদের জন্য পিসিসিপি ‘হেল্প ডেস্ক’ মানিকছড়িতে উপ-নির্বাচন প্রতীক পেয়ে প্রচারণায় প্রার্থীরা বান্দরবানে ২৫ এবং ৫২ কিলোমিটার ম্যারাথন দৌড়ে আলমগীর হোসেন ও আব্দুর রহমান প্রথম লংগদুতে সেনা জোনের উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দুর্বৃত্তদের ব্রাশ ফায়ারে নিহতদের স্মরণে স্মৃতিস্তম্ভ নির্মিত

মোঃ ইব্রাহীম বাঘাইছড়ি প্রতিনিধি :- / ১৩০ জন পড়েছেন
প্রকাশিত : বুধবার, ৮ নভেম্বর, ২০২৩

ইব্রাহীম বাঘাইছড়ি প্রতিনিধি:-

২০১৯ সালের ১৮ মার্চ ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দায়িত্ব পালন শেষে বাঘাইহাট হতে বাঘাইছড়ি উপজেলা সদরে ফেরার পথে ৯ কিলো নামক এলাকায় দুর্বৃত্তদের ব্রাশফায়ারে ঘটনস্থালে ৬ ও চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১জন মৃত্যু বরণ করেন।

বাঘাইছড়ি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সুদর্শন চাকমা ও নির্বাহী অফিসার রুমানা আক্তারের উদ্যোগে স্মৃতিস্তম্ভ টি নির্মিত হয়।

বুধবার (৮নভেম্বর) দুপুরে স্মৃতিস্তম্ভে দাঁড়িয়ে শহীদদের স্মরণে ১ মিনিট নিরবতা পালন করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুমানা আক্তার। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল কাইয়ুম ও সাগরিকা চাকমা, ইউপি চেয়ারম্যান অলিভ চাকমা, আপন চাকমা, বিল্টু চাকমা, নির্বাচন অফিসার চৈতালী চাকমা, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আতাউর রহমান প্রমুখ।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুমানা আক্তার বলেন, আমি বাঘাইছড়ি উপজেলার সাথে ভালোভাবে পরিচিত হয়েছি ২০১৯ সালের ১৮ মার্চের নির্বাচনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে এরমধ্যে বাঘাইছড়িতে এসে অনেকের দাবী পেলাম সেই ঘটনায় নিহতদের স্মরণে একটি স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণের জন্য উপজেলা চেয়ারম্যানের আগ্রহে অবশেষে নির্মিত হলো স্তম্ভটি।

উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল কাইয়ুম বলেন, ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দায়িত্ব পালনকালে নিহতদের পরিবারের দাবী এবং আমাদের উদ্যোগ ছিলো একটি স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণের অবশেষে আজ নির্মিত হলো। আমাদের ভালো লাগছে শহীদদের নাম বর্তমান ও পরবর্তী প্রজন্ম জানতে পারবে।

শহীদ মিহির কান্তি দত্তের ছেলে পিয়াল দত্ত বলেন উপজেলা চেয়ারম্যান ও ইউ এন ও মহোদয়ের প্রচেষ্টায় আমাদের দাবীটি পূর্ণ হলো এখন অন্তত প্রতি বছর তাদের স্মরণে একটু দাঁড়িয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে পারবো।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো সংবাদ